রাশিয়ার খাদ্য ও সার নিষেধাজ্ঞার আওতামুক্ত: ইইউ

ইউরোপীয় ইউনিয়নের পররাষ্ট্র নীতি বিষয়ক প্রধান জোসেপ বোরেল বলেছেন, রাশিয়ার খাদ্য ও সার অবাধে কেনা, স্থানান্তর এবং বীমা করা যেতে পারে।

সোমবার বোরেল বলেন, কেউ রাশিয়ার খাদ্য এবং সার কিনতে চাইলে তারা অবাধে এবং নিষেধাজ্ঞার ভয় ছাড়াই তা করতে পারে। নিষেধাজ্ঞা ওই পণ্যগুলোর ক্ষেত্রে প্রযোজ্য নয়। জোসেপ বোরেল ইইউ পররাষ্ট্রমন্ত্রীদের সঙ্গে বৈঠকের আগে সাংবাদিকদেরকে এ কথা বলেন।

সামরিক সংঘাতের মধ্যে ইউক্রেনের কৃষ্ণসাগরীয় বন্দরগুলোতে আটকে থাকা শস্য মুক্ত করার উপায় আলোচনা করা ছিল ওই বৈঠকের অন্যতম উদ্দেশ্য। ডাব্লিউটিওর অনুমান, বর্তমানে ইউক্রেনের বন্দরে ২ কোটি ২০ লাখ থেকে আড়াই কোটি টন শস্য মজুত রয়েছে। পশ্চিমা দেশগুলো রাশিয়াকে এসব রপ্তানি আটকে দেওয়ার জন্য অভিযুক্ত করেছে। তবে মস্কো বলেছে, তারা কৃষ্ণসাগরের মধ্য দিয়ে ইউক্রেনীয় শস্যবোঝাই জাহাজের জন্য নিরাপদ পথের ব্যবস্থা করতে আগ্রহী। দেশটির অভিযোগ, ইউক্রেনের সামরিক বাহিনী এতে বাধা দিচ্ছে। তারা বন্দরগুলোতে মাইন পেতে রেখেছে।

জোসেপ বোরেল বলেন, ‘বিশ্বে, বিশেষ করে আফ্রিকায় একটি বড় দুর্ভিক্ষের ঝুঁকি সম্পর্কে আমি আবারও সতর্ক করছি। এ যুদ্ধ মূল্যবৃদ্ধি এবং জ্বালানি ও খাদ্যের ঘাটতি তৈরি করছে। আমরা ইউক্রেন থেকে রপ্তানি চালু করার জন্য জাতিসংঘের প্রচেষ্টাকে সমর্থন করছি’।

সূত্র: রুশ দূতাবাসের বিজ্ঞপ্তি।

Back to top button