গৃহকর্মীকে মারধর: অভিনেত্রী একার বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র গ্রহণ

গৃহকর্মীকে মারধরের ঘটনায় রাজধানীর হাতিরঝিল থানায় করা মামলায় অভিনেত্রী সিমন হাসান একার বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র গ্রহণ করেছে আদালত। আজ সোমবার (২০ জুন) ঢাকার মেট্রোপলিট ম্যাজিস্ট্রেট শহিদুল ইসলাম এ অভিযোগ গ্রহন করেন। একইসঙ্গে মামলাটি বিচারের জন্য প্রস্তুত হওয়ায় তা বদলির আদেশ দেন। গত বছরের ৩১ জুলাই চিত্রনায়িকা একার বিরুদ্ধে নির্যাতনের অভিযোগে গৃহকর্মী হাজেরা বেগম একটি মামলা করেন। তদন্ত শেষে গত ২৪ এপ্রিল একাকে অভিযুক্ত করে অভিযোগপত্র দাখিল করেন তদন্ত কর্মকর্তা হাতিরঝিল থানার সাব-ইন্সপেক্টর (নিরস্ত্র) মো. ফয়সাল। জানা গেছে, ভুক্তভোগী গৃহকর্মী তিন মাস ধরে অভিনেত্রী একার বাসায় কাজ করতেন। প্রথমে তার বেতন তিন হাজার টাকা হলেও পরে কাজ বেড়ে যাওয়ায় পাঁচ হাজার টাকা ঠিক হয়।

প্রথম মাসের বেতন তিন হাজার টাকা দিলেও গত দুই মাসের বেতন একসঙ্গে চাইতে গেলে অভিনেত্রী একা তাকে আর কাজ করাবেন বলে জানান। তখন গৃহকর্মী হাজেরা বেগম বকেয়া বেতন চাইলে আসামি একা ঘর থেকে বের হয়ে গৃহকর্মীর গলা ধাক্কা দেয়। বেতন না দিলে যাবে না বললে গৃহকর্মীকে এলোপাতাড়ি মারধর শুরু করে। এ সময় গৃহকর্মী রুম থেকে বের না হওয়ায় আসামি একা দৌড়ে রান্না ঘর থেকে বটি নিয়ে এনে তাকে হত্যার উদ্দেশ্যে মাথায় কোপ মারতে যায়৷ তখন গৃহকর্মী হাত দিয়ে ঠেকাতে গেলে তার হাত মারাত্মক ভাবে জখম হয়। এ সময় গৃহকর্মী চিৎকার করলে তার মুখ চেপে ধরে বিভিন্ন ধরনের ভয়ভীতি প্রদর্শন করেন। এরপর ৯৯৯ থেকে ফোন পেয়ে পুলিশের মোবাইল টিমের সদস্যরা আসামির একার বাসা থেকে ভুক্তভোগী গৃহকর্মীকে উদ্ধার করে৷ এরপর চিকিৎসার জন্য তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এ সময় নিজের ফ্ল্যাট থেকে একাকে আটক করে ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) হাতিরঝিল থানা পুলিশ। এ সময় সেখান থেকে পাঁচ পিস ইয়াবা, পঞ্চাশ গ্রাম গাঁজা এবং অর্ধেক বোতল কেরু মদ জব্দ করা হয়।

Back to top button