স্বামীর মৃত্যুর দু’বছর পর তাঁরই সন্তানের জন্ম দিলেন তরুণী, কীভাবে সম্ভব?

সন্তানের পরিকল্পনা করেছিলেন ওঁরা। কিন্তু তার আগেই ভয়ংকর সংবাদ! ক্রিস আর লরেনের স্বপ্নের দাম্পত্যের মাঝে এসে পড়ে ব্রেন টিউমার (Brain Tumour) নামের এক ভিলেন। অসুস্থ ছিলেনই। একাধিক শারীরিক পরীক্ষার পর জানা যায় ক্রিসের ব্রেন টিউমার হয়েছে। এরপর মৃত্যু হয় ক্রিসের। একা হয়ে যান লরেন। কিন্তু স্বামীর মৃত্যুর দুই বছর পর সেই ক্রিসের ঔরসজাত সন্তানের জন্ম দিলেন তিনি। তাক লাগিয়ে দিলেন গোটা বিশ্বকে। কীভাবে সম্ভব হল?

বছর ৩৩-এর তরুণী লরেন ম্যাকগ্রেগর (Lauren McGregor) ইংল্যান্ডের (England) লিভারপুলের বাসিন্দা। স্বামী ক্রিসের (Chris) মৃত্যু হয় ২০২০ সালের জুলাই মাসে। এর প্রায় দুই বছর পরে ক্রিসের ঔরসজাত সন্তানের মা হয়ে চমকে দিয়েছেন লরেন। আসলে এই কাজ সম্ভব হয়েছে ক্রিসের বীর্য সংরক্ষণ করার ফলে। লরেন জানিয়েছেন, ক্রিসের মৃত্যুর ৯ মাস পরে তিনি আইভিএফ (IVF) পদ্ধতি গর্ভবতী হন। কাজে আসে প্রয়াত স্বামীর বীর্য। এরপর চলতি বছরে ১৭ মে ফুটফুটে সন্তানের জন্ম দেন। ছেলের নাম রেখেছেন সেব। লরেন জানিয়েছেন, সেবকে হুবহু তার বাবার মতোই দেখতে। ক্রিসই যেন লরেনের গর্ভে ফিরে এসেছেন!

[আরও পড়ুন: OMG! ফ্রাইংপ্যান দিয়ে কুমির পেটালেন রেস্তরাঁ মালিক! ভিডিও দেখলে চোখ কপালে উঠবে]
লরেনের কথায়, “সেবকে তার বাবার সঙ্গে পরিচয় করিয়ে দেওয়ার কোনও প্রয়োজনই নেই। কারণ সেবকে প্রায় ক্রিসের মতোই দেখতে। ক্রিস এখন যেখানেই থাকুক সেখান থেকে যেন এক টুকরো সেব হয়ে ফিরে এসেছে আমার কাছে।” লরেন দাবি করেছেন, যত দিন যাচ্ছে তত যেন আরও বেশি করে ক্রিসের মতো হয়ে উঠছে সেব! ওর চুল, ঠোঁট একেবারে ক্রিসের মতোই!

[আরও পড়ুন: ব্যান্ড পার্টির পাওনা মেটাবে কে? কনে পক্ষের সঙ্গে তুমুল বচসা, বিয়েই ভেস্তে দিলেন বর]
ক্রিসের আগের পক্ষের এক ছেলে রয়েছে। তার নাম ওয়েড। আঠেরো বছরের সেই ছেলে সৎমা ও ভাইকে সারাক্ষণ আগলে আগলে রাখছে, এমনটাই জানিয়েছেন লরেন। তার কথায়, ওয়েড যতখানি দায়িত্ব নিয়ে তার মা ওভাইয়ের পাশে দাঁড়িয়েছে, তার জন্য কোনও প্রশংসাই যথেষ্ট নয়।

Back to top button