“আমার ছেলে অবৈধ নয়! ওর বাবা আছে” ক্যামেরার সামনে মেজাজ হারালেন নুসরাত, ভাইরাল ভিডিও

আগেকার দিনে নিজের প্রতিভা প্রকাশ করার জন্য টেলিভিশন বা রেডিও একটা অডিশনের ওপর নির্ভর করত। বাস্তব চিত্রটা আগেকার দিনে তেমনই ছিল। কিন্তু বর্তমানে চিত্রটা অনেকটাই বদলেছে। যুগ এগিয়েছে সামনের দিকে। তারকারা যে সবসময় টাইমলাইন জুড়ে থাকতে বেশ পছন্দ করেন, তা ভালো ভাবেই বোঝা যায়। সেটা টেলিভিশন জগতের হোক কিংবা বলিউড, টলিউডের অভিনেতা অভিনেত্রীরা। তাই তো মাঝে মধ্যেই নেট দুনিয়ায় উঠে আসে তাদের সমস্ত ভিডিও, নিজেকে নিয়ে ওঠা নানা প্রশ্নেরই জবাব দিলেন নুসরত জাহান। নুসরতের রেডিয়ো শো নিয়ে, এমনিতেও সকলের মধ্যে উৎসাহ চরমে।

ঋতাভরী থেকে মদন, তনুশ্রী থেকে বং গাই-সবাই নিজের জীবনের ‘গোপন কথা’ তুলে ধরেছেন আপাতত!
এবার কি পালা নুসরতের? নুসরত জাহানকে নিয়ে বির্তক যেন থামতেই চাইছেনা। তবে নুসরত সে সব কানে তোলার পাত্রী নন। এবার সবার সামনে আনলেন, তাঁর ছেলের অভিভাবককে। বললেন যশ দাশগুপ্ত হলেন তাঁর সন্তানের অভিভাবক।

গর্ভাবস্থা থেকে হাসপাতালে ভর্তি পর্যন্ত বান্ধবী নুসরতকে কাছছাড়া করেননি, তাঁর বিশেষ বন্ধু যশ। ছেলে ঈশানকে নিয়ে বাড়ি ফেরার দিনও নুসরত জাহানের সঙ্গে ছিলেন যশ। দায়িত্ববান পুরুষের মতো নুসরতের ছেলেকে নিজের কোলে নিয়ে গাড়িতে ওঠেন অভিনেতা। সারাক্ষণ নুসরতের ছায়া সঙ্গী হয়ে থেকেছেন তাঁর বিশেষ বন্ধু যশ দাশগুপ্ত।

অন্তঃসত্ত্বা নুসরতের গর্ভাবস্থার প্রতিটি পর্বে তাঁর যথেষ্ট খেয়াল রেখেছেন বন্ধু যশ, তা অভিনেত্রীর ইনস্টা স্টোরিতে বিভিন্ন সময় প্রকাশ্যে এনেছেন যশরত। বুধবার নতুন এপিসোড সামনে আসার পর দেখা গেল, নুসরত বসে পড়েছেন অতিথির কুর্সিতে। তাঁকে নিয়ে যেসব প্রশ্ন উঠেছে আগের এপিসোড গুলোর, সোশ্যাল মিডিয়ার কমেন্ট বক্সে তার উত্তর দিতে। আর সেখানেই নুসরতকে বলতে শোনা যায়, তিনি জীবনে অনেক ভুল করেছেন। অনেক ভুল কথা বলেছেন। অনেককে কষ্ট দিয়েছেন। যার মধ্যে তাঁর মা-বাবা আছে, আছে সঙ্গীও! নুসরত আরও বলেন, হতে পারে পরবর্তী কালে তাঁর ছেলে ঈশানও তাঁর ব্যবহারে কষ্ট পেতে পারে! কিন্তু এত ভুল করা সত্ত্বেও একটা চেষ্টা তাঁর সবসময় থাকে, আর তা হল নিজের মুখে ভুল মেনে নেওয়া! কারণ নুসরত মনে করেন, ‘অন্যের কাছ থেকে যখন আপনার কাছের মানুষ আপনার ভুল জানতে পারে তখন সেটা অপরাধ হয়। আর আপনি যখন নিজে গিয়ে তা স্বীকার করে নেন তখন সেটা হয় স্বীকারোক্তি’! অভিনেত্রী নুসরত জাহানকে নিয়ে কনট্রোভার্সি নতুন কিছু নয়!

আর যার বড় বড় বিতর্কগুলোই তাঁর সঙ্গীদের নিয়ে। অভিনয়ে পা রাখার দিন কয়েকের মধ্যেই পার্ক স্ট্রিট ধর্ষণ মামলার প্রধান অভিযুক্ত কাদের খানকে সাহায্য করার অভিযোগ উঠেছিল অভিনেত্রীর বিরুদ্ধে। ধর্ষণের পরেও এক হোটেলে থাকা, বিমানে করে পালিয়ে যাওয়ার টিকিট কেটে দেওয়ার মতো একাধিক বিষয়ে সামনে এসেছিল। তারপর নুসরতের জীবনের আরেক চাঞ্চল্যকর বিতর্ক হল নিখিল জৈন-র সাথে বিয়ে অবৈধ ঘোষণা। নুসরত মা হতে চলেছেন একথা সামনে আসতেই নিখিল জানিয়ে দেন তিনি সন্তানের বাবা নন। তাঁরা আলাদা থাকেন। এরপরেই নুসরত হঠাৎই প্রেস রিলিজ জারি করে জানিয়ে দেন তাঁর আর নিখিলের বিয়ে অবৈধ। তারপর জানা যায় তাঁর সন্তানের বাবা যশ দাশগুপ্ত। বর্তমানে নিজেকে যশের স্ত্রী হিসেবেও দাবি করেন নুসরত। যদিও এই এতগুলো সিদ্ধান্তের মধ্যে কোনটা ভুল আর কোনটা ঠিক, তা নিয়ে বাইরের কারও (ফ্যান থেকে মিডিয়া) সাথে কথা তিনি আগেও বলেননি, হয়তো বলবেন না ভবিষ্যতেও !

শেয়ার করুন

Back to top button