বেশিরভাগ ট্রেন সময় মতো ছাড়ছে, যাত্রীরা সন্তুষ্ট

কমলাপুর স্টেশন থেকে সময় মতো ছেড়ে যাচ্ছে অধিকাংশ ঈদযাত্রার ট্রেন। সময় মতো ছাড়ায় ঘরমুখো যাত্রীরা খুশি।

তবে আজ বুধবার (৬ জুলাই) সকালে রংপুর এক্সপ্রেস নির্ধারিত সময় থেকে ৫০ মিনিট বিলম্বে ছাড়ার কথা জানিয়েছেন কমলাপুর স্টেশন ম্যানেজার মাসুদ সারওয়ার।

সকালে কমলাপুর স্টেশন থেকে রাজশাহীর ধূমকেতু এক্সপ্রেস, চট্টগ্রামের সোনার বাংলা এক্সপ্রেস ও মহানগর প্রভাতী, দিনাজপুরের নীলসাগর, রংপুরের তিস্তা এক্সপ্রেস, খুলনার সুন্দরবন এক্সপ্রেস নির্ধারিত সময়ে ছেড়ে গেছে। এছাড়া মহুয়া কমিউটার ও কর্ণফুলী কমিউটারও ঠিক সময়ে ছেড়েছে।

ঈদযাত্রার প্রথম দিন গতকাল মঙ্গলবার (৫ জুলাই) রংপুর এক্সপ্রেস, নীল সাগর এক্সপ্রেস, ধূমকেতু ও সুন্দরবন এক্সপ্রেস কিছুটা বিলম্বে আসায় ছাড়তেও দেরি হয়েছে বলে কমলাপুর রেল স্টেশনের ম্যানেজার মাসুদ সারওয়ার জানিয়েছেন।

তিনি বলেন, সবার সহযোগিতা এবং সব ধরনের প্রস্তুতি নিয়েই ঈদযাত্রার ট্রেন চলাচল শুরু হয়েছে।

আমরা সর্বাত্বক চেষ্টা করছি ট্রেনগুলো যেন সময় মতো স্টেশন ছেড়ে যায়।

শহীদ উল্লাহ নামের চট্টগ্রামগামী সোনার বাংলা এক্সপ্রেসের যাত্রী বলেন, দুইদিন লাইনে দাঁড়িয়ে অবশেষে অনেক কষ্ট করে আজকের টিকিট পেয়েছি। তাই পরিবারের সঙ্গে ঈদ করতে বাড়ির পথে রওয়ানা হয়েছি। আশা করছি, নিরাপদে বাড়ি যেতে ও ফিরে আসতে পারবো।

মহুয়া কমিউটারের যাত্রী বিপ্লব বলেন, কমিউটার ট্রেন এর আগে কখনো শিডিউল বিপর্যয়ে পড়েনি। এবারও শিডিউল ঠিক রেখে চলছে। আমরা যেদিন ভ্রমণ করবো, সেদিনই টিকিট পাই। ভোগান্তি ছাড়া বাড়ি যেতে পারছি। এটা আমাদের ঈদের আনন্দ বাড়িয়ে দিচ্ছে।

প্রসঙ্গত, শুক্রবার (১ জুলাই) থেকে ঈদ উপলক্ষে ট্রেনের অগ্রিম টিকিট বিক্রি শুরু হয়। ১ জুলাই দেওয়া হয় ৫ জুলাইয়ের টিকিট। ২ তারিখ ৬ জুলাইয়ের টিকিট, ৩ তারিখ ৭ জুলাইয়ের টিকিট, ৪ তারিখ ৮ জুলাইয়ের টিকিট এবং ৫ জুলাই দেওয়া হয় ৯ জুলাইয়ের অগ্রিম টিকিট।

অপরদিকে ট্রেনের ফিরতি টিকিট বিক্রি শুরু হবে আগামী ৭ জুলাই (বৃহস্পতিবার) থেকে। ৭ জুলাই দেওয়া হবে ১১ জুলাইয়ের টিকিট। ৮ তারিখ ১২ জুলাইয়ের টিকিট, ৯ তারিখ ১৩ জুলাইয়ের টিকিট, ১১ তারিখ ১৪ এবং ১৫ জুলাইয়ের টিকিট বিক্রি হবে। এছাড়া ঈদের পরদিন ১১ জুলাই সীমিত কয়েকটি আন্তঃনগর ট্রেন চলাচল করবে।

তবে ১২ জুলাই থেকে সব ট্রেন নিয়মিতভাবে চলাচল করবে বলে জানিয়েছে রেল কর্তৃপক্ষ।

Back to top button