‘ক্ষমা না চাইলে ছাত্রদলকে ঢাকায় রাজনীতি করতে দেওয়া হবে না’

ক্ষমা না চাইলে ছাত্রদলকে ঢাকা শহরে রাজনীতি করতে দেওয়া হবে না বলে মন্তব্য করেছেন ঢাকা মহানগর দক্ষিণ ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মো. জুবায়ের আহমেদ।

রোববার (২৯ মে) বিকালে ২৩ বঙ্গবন্ধু এভিনিউতে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ ছাত্রলীগের আয়োজনে এক বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সভায় তিনি এ কথা বলেন।

জুবায়ের আহমেদ বলেন, ক্যাম্পাসে যখন সাধারন শিক্ষার্থীরা বই খাতা কলম নিয়ে যাচ্ছিল। সারাদেশে যখন শেখ হাসিনার উন্নয়নে সমৃদ্ধ হচ্ছে ঠিক তখনই ছাত্র নামে অছাত্ররা ক্যম্পাস গুলোতে অস্থিতিশীল পরিবেশ সৃষ্টি করার পাঁয়তারা করছে। তারা আবারো ক্যাম্পাস গুলোতে লাশের রাজনীতি কায়েম করতে চায়। তাদের এই পাঁয়তারা অশুভ চক্র কে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ ছাত্রলীগ যেখানে পাবে সেখানেই প্রতিহত করবে।

তিনি আরো বলেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধুর তানায়া জননেত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনা আামদের আবেগ ও অনুভূতির জায়গা। তিনি সারা বাংলাদেশে উন্নয়ন করে যাচ্ছেন। সাধারণ মানুষের ভাগ্যোন্নয়নে পরিশ্রম করে বঙ্গবন্ধুর বাংলাদেশ গড়ার স্বপ্ন নিয়ে কাজ করছেন। আজ দেখছি অত্র কুলাঙ্গারেরা আমাদের মমতাময়ী মা প্রধানমন্ত্রীকে নিয়ে কথা বলার চেষ্টা করছেন।

ঢাকা মহানগর দক্ষিণ ছাত্রলীগের এই সাধারণ সম্পাদক বলেন, আমরা ঢাকা মহানগর দক্ষিণ ছাত্রলীগ তোমাদেরকে হুঁশিয়ার করে দিতে চাই, আমাদের আবেগ নিয়ে খেলো না, এর ফলাফল খুবই ভয়াবহ হবে। ছাত্রদলের ওই অছাত্রদের বলতে চাই, যে পর্যন্ত তোমরা মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কাছে ক্ষমা ভিক্ষা না চাইবে ততদিন এই ঢাকা শহরে কোন ধরনের রাজনীতি করতে দেওয়া হবে না। রাজনীতি করতে হলে শিষ্টাচার নিয়ে রাজনীতি করতে হবে।

জুবায়ের আহমেদ এ সময় বলেন তোমরা আমাকে নিয়ে প্রশ্ন করো, তোমাদের পরিচয় দাও তোমরা কারা তোমাদের ছাত্রত্ব কি আছে? আমি ছাত্রলীগ করি, শিক্ষার্থীদের পাশে দাঁড়ানো এটা আমার সাংগঠনিক দায়িত্ব। তোমরা কারা। চাচ্চুরা, তোমাদের নেতা খুনি তারেক রহমান তেমাদের যে নির্দেশনা দেয় তোমরা শুধু সেটাই বাস্তবায়ন করার জন্য কাজ করো। সেই নেতাকে বল যদি রাজনীতি করতে হয় সাহস থাকলে দেশে এসে রাজনিতি করতে।

এসময় ঢাকা মহানগর দক্ষিণ ছাত্রলীগের নেতৃবৃন্দ ও মহানগর দক্ষিণ ছাত্রলীগের বিভিন্ন থানা, কলেজ/বিশ্ববিদ্যালয়, বিভিন্ন ইউনিটের সভাপতি/সাধারণ সম্পাদকসহ অসংখ্য নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

Back to top button