দনেতস্কে বৃষ্টির মতো বোমা ফেলতে শুরু করেছে রাশিয়া

হঠাৎ করেই ইউক্রেনের দনেতস্কে বোমা হামলা জোরালো করেছে রাশিয়া। দনেতস্কের পূর্বাঞ্চলের শহরগুলোতে বৃষ্টির মতো বোমা ফেলা হচ্ছে। ইউক্রেনের কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, বাখমুত, ক্রামাতরস্ক, চ্যাসিভ ইয়ার, স্লোভিয়ানস্ক এবং কস্তিনাতিনিভকা শহর সবথেকে বেশি ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে। এছাড়া এসব শহরের পাশে থাকা গ্রামগুলোও বাদ যাচ্ছে না হামলা থেকে।

আল-জাজিরার খবরে জানানো হয়, বোমার পাশাপাশি মিসাইল হামলাও বেড়েছে সেখানে। বাখমুত, ক্রামাতরস্ক এবং কস্তিনাতিনিভকাতে একাধিক মিসাইল হামলা হয়েছে। এতে একাধিক স্কুল, বাড়িঘর, ব্যবসা প্রতিষ্ঠান এবং শিল্প এলাকা ধ্বংস হয়ে গেছে। রোববার থেকেই লাগাদার বিস্ফোরণে কাপছে পূর্ব দনেতস্কের শহরগুলো। ইউক্রেনের সেনাবাহিনীর অধিনে যেসব অবকাঠামো রয়েছে সেগুলোতে হামলা করছে রাশিয়া। যদিও এতে বেসামরিক ক্ষয়ক্ষতিই বেশি হচ্ছে বলে দাবি করেছে কিয়েভ।

ইউক্রেনে রাশিয়ার হামলা শুরুর পর ইতিমধ্যেই পাঁচ মাস গড়িয়েছে। গত ২৪ ফেব্রুয়ারি হামলা শুরুর সময় রাশিয়া একে ‘বিশেষ সামরিক অভিযান’ বলে উল্লেখ করেছিল।

তখন রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন বলেছিলেন, ইউক্রেনকে ‘নিরস্ত্রীকরণ ও নাৎসি প্রভাব’মুক্ত করতে তাদের এই অভিযান। তবে রাশিয়ার এই দাবি ভিত্তিহীন বলে উড়িয়ে দিয়েছিল ইউক্রেন ও পশ্চিমারা। রাশিয়ার আক্রমণের পরই ইউক্রেনকে সহায়তা পাঠানো শুরু করে পশ্চিমা দেশগুলো। সেই ধারায় গত সপ্তাহে ইউক্রেনকে তিনটি অত্যাধুনিক কামান দিয়েছে জার্মানি। সেই সঙ্গে বিপুল পরিমাণে গোলাবারুদও দিয়েছে তারা। গত জুন মাসে জার্মানি সাতটি হাউইটজার কামান দিয়েছিল। এবার তারা দিয়েছে গেপার্ড কামান। এই যুদ্ধাস্ত্র ইউক্রেনের হাতে তুলে দিতে অনেকটা সময় লাগে। এই কামানগুলিকে প্রথমে যুদ্ধের জন্য তৈরি করতে হয়। তারপর ইউক্রেনের সেনাকে তা চালানোর জন্য প্রশিক্ষণ দিতে হয়। তারপর সেই অস্ত্র যায়।

Back to top button