করোনায় মৃত্যু ১৯০০, শনাক্ত সাড়ে ৮ লক্ষাধিক

চলমান করোনা মহামারিতে বিশ্বজুড়ে দৈনিক মৃত্যুর সংখ্যা আরও বেড়েছে। একইসঙ্গে আগের দিনের তুলনায় বেড়েছে নতুন শনাক্ত রোগীর সংখ্যাও। গত ২৪ ঘণ্টায় সারা বিশ্বে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন প্রায় ১৯০০ মানুষ। একই সময়ে ভাইরাসটিতে নতুন করে আক্রান্তের সংখ্যা ছাড়িয়েছে সাড়ে ৮ লাখ।

এদিকে গত ২৪ ঘণ্টায় বিশ্বজুড়ে সবচেয়ে বেশি সংক্রমণের ঘটনা ঘটেছে জাপানে। অন্যদিকে দৈনিক প্রাণহানির তালিকায় শীর্ষে উঠে এসেছে যুক্তরাষ্ট্র। প্রাণহানির তালিকায় এরপরই রয়েছে ব্রাজিল, ইতালি, মেক্সিকো, জাপান ও ফ্রান্স। এতে বিশ্বব্যাপী করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ছাড়িয়েছে ৫৭ কোটি ৮০ লাখের ঘর। অন্যদিকে মৃতের সংখ্যা ছাড়িয়েছে ৬৪ লাখ ৯ হাজার।

বৃহস্পতিবার (২৮ জুলাই) সকালে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত, মৃত্যু ও সুস্থতার হিসাব রাখা ওয়েবসাইট ওয়ার্ল্ডোমিটারস থেকে পাওয়া সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী, গত ২৪ ঘণ্টায় সারা বিশ্বে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ১ হাজার ৮৮৯ জন। অর্থাৎ আগের দিনের তুলনায় মৃত্যুর সংখ্যা বেড়েছে দুই শতাধিক। এতে বিশ্বজুড়ে মৃতের সংখ্যা পৌঁছেছে ৬৪ লাখ ৯ হাজার ৯১২ জনে।

একই সময়ের মধ্যে ভাইরাসটিতে নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ৮ লাখ ৫৯ হাজার ৭৪৪ জন। অর্থাৎ আগের দিনের তুলনায় নতুন শনাক্ত রোগীর সংখ্যা বেড়েছে ৩৫ হাজারের বেশি। এতে মহামারির শুরু থেকে এ পর্যন্ত ভাইরাসে আক্রান্ত মোট রোগীর সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৫৭ কোটি ৮০ লাখ ১৫ হাজার ৪৩ জনে।

গত ২৪ ঘণ্টায় সবচেয়ে বেশি করোনা শনাক্ত হয়েছে জাপানে, ১ লাখ ৮০ হাজার ২২৬ জনের। দেশটিতে ২৪ ঘণ্টায় মারা গেছেন ১০৮ জন। এ সময়ে সবেচেয়ে বেশি ৩৯৭ জন মারা গেছেন যুক্তরাষ্ট্রে। এই ২৪ ঘণ্টায় দেশটিতে ১ লাখ ১৪ হাজার ১১৬ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে।

এ নিয়ে করোনায় ক্ষতিগ্রস্ত দেশের তালিকার শীর্ষে থাকা যুক্তরাষ্ট্রে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়ালো ৯ কোটি ২৭ লাখ ৬১ হাজার ৮৬৫ জনে। তাদের মধ্যে মারা গেছেন ১০ লাখ ৫৩ হাজার ৯৫৯ জন। এছাড়া সুস্থ হয়েছেন আট কোটি ৭৭ লাখ ৭২ হাজার ১৬৪ জন।

এছাড়া ব্রাজিলে একদিনে মারা গেছেন ৩০৮ জন, ইতালিতে ২০৭ জন, ফ্রান্সে ১০৩ জন, মেক্সিকোয় ১৫২ জন, রাশিয়ায় ৩৬ জন, অস্ট্রেলিয়ায় ৮২ জন এবং ইসরায়েলে ৪৩ জন মারা গেছেন।

এসময়ে বাংলাদেশে করোনা আক্রান্ত হয়ে ৫ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে দেশে করোনায় মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ২৯ হাজার ২৮০ জনে। এসময়ে রোগী শনাক্ত হয়েছে ৬২৬ জন। এ নিয়ে মোট আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ২০ লাখ ৩ হাজার ৫৭০ জনে।

Back to top button