ইউক্রেনের দ্বিতীয় বৃহত্তম বিদ্যুৎকেন্দ্র দখল করে আত্মরক্ষামূলক অবস্থানে রাশিয়া

ইউক্রেনের দ্বিতীয় বৃহত্তম বিদ্যুৎকেন্দ্র ভুলেহিরস্ক দখল করে নিয়েছে রুশ বাহিনী। গত তিন সপ্তাহের মধ্যে এটিই রাশিয়ার সবথেকে বড় অর্জন। এই বিদ্যুৎকেন্দ্র দখলের পরপরই আক্রমণাত্মক অবস্থান থেকে প্রতিরক্ষামূলক অবস্থানে চলে গেছে রুশ বাহিনী। এ জন্য সেখানে প্রচুর পরিমাণে সেনা মোতায়েন করেছে রাশিয়া। এ খবর দিয়েছে এশিয়াওয়ান।

খবরে জানানো হয়, ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভোলোদিমির জেলেনস্কির উপদেষ্টা ওলেকসি আরেস্টোভিচ বিদ্যুৎকেন্দ্র হারানোর কথা স্বীকার করেছেন। যদিও তিনি রাশিয়ার এই অর্জনকে বড় করে দেখতে রাজি নন। তিনি জানান, দক্ষিণে রাশিয়ার পুনরায় সেনা মোতায়েন আক্রমণাত্মক থেকে আত্মরক্ষামূলক অবস্থান গ্রহণ হিসেবে দেখা হচ্ছে। মেলিতোপোল, জাপোরিঝঝিয়া ও খেরসন অঞ্চলে পুনরায় সেনা মোতায়েন করা হচ্ছে।

এর আগে গত ২৭শে জুলাই সোভিয়েত আমলের ভুলেহিরস্ক বিদ্যুৎকেন্দ্র দখলের ঘোষণা দেয় রুশ বাহিনী। তাদের থামাতে দিনিপ্রো নদীর উপরে থাকা একটি গুরুত্বপূর্ণ সেতু ধ্বংস করে দিয়েছে ইউক্রেনের সেনারা। তবে রুশ কর্মকর্তারা বলেছেন, সেতুর পরিবর্তে সেনাদের নদী পারাপারে তারা পন্টুন ব্রিজ ও ফেরি ব্যবহার করবেন।

এ নিয়ে ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট জেলেনস্কি বলেন, আগ্রাসী শক্তি যাতে ইউক্রেনের মধ্যে তাদের রসদ পৌছাতে না পারে তা নিশ্চিতে সবকিছু করা হচ্ছে।

Back to top button