কন্যাদান করেছিলেন যে ‘ভাই’, তার সঙ্গেই অনৈতিক সম্পর্ক

দাম্পত্য কলহে থেকে দিনের পর দিন সংসারে আগুন জ্বলছিল। যা নিয়ে স্বামী অভিনেতা করণ মেহরার বিরুদ্ধে অভিযোগ জানিয়েছিলেন টেলিভিশন অভিনেত্রী নিশা রাওয়াল। এবার স্ত্রীর বিরুদ্ধে পাল্টা অভিযোগ করণের। জানালেন, নিশা পরকীয়া সম্পর্কে জড়িয়ে পড়াতেই সমস্যার সূত্রপাত। তিনি আসলে কোনও রকম দুর্ব্যবহার করেননি। বরং, ঘটনার শিকার হয়েছেন তিনিই।

২০২১ সাল, অর্থাৎ তাঁদের বিয়ের ন’বছর পর আলাদা হয়ে যান তারকা জুটি কর্ণ-নিশা। গত ১৪ মাস ধরে ছেলে কবিশের ভরণপোষণের দায়িত্ব নিজের হাতেই রেখেছেন নিশা। ‘ইয়ে রিশতা কেয়া খেলাতা হ্যায়’-র অভিনেতা করণের দাবি, আদালতের রায়ে তিনি নিঃস্ব। কঙ্গনা রানাউতের ‘লক আপ’-এ প্রতিযোগী হওয়ার সুবাদে সবটাই প্রকাশ্যে এনেছিলেন নিশা। এ বার পাল্টা অভিযোগ করলেন করণও। সম্প্রতি সাংবাদিকদের কাছে অভিযোগ প্রকাশ্যে আনেন অভিনেতা। বললেন, ‘নিশা আমার সঙ্গে বিশ্বাসঘাতকতা করেছে। গত ১৪ বছর ধরে যাকে ভাই বলে আসছে আসলে তার সঙ্গেই পরকীয়ার সম্পর্কে আছে ও। সেই ভাইয়ের নাম রোহিত সাথিয়া। বিয়ের সময় কন্যাদান করেছিল সে-ই।’

করণে ক্ষোভ উগরে দিয়ে বলেন, ‘আমারই চার কামরার ফ্ল্যাটে ওই লোকটাকে নিয়ে আছে নিশা। আমার ল্যাপটপ, কাগজপত্র, টাকাপয়সা ব্যবহার করছে। সেই টাকা থেকেই আমার বিরুদ্ধে মামলা করেছে। এ কেমন বিচার? আমাদের মধ্যে এখনও আইনি বিচ্ছেদ পর্যন্ত হয়নি। আমি সুবিচার চাই।’

করণের দাবি, তাঁর ছেলে সেখানে বেড়ে ওঠার ঠিক মতো পরিবেশ পাচ্ছে না। রোহিত নেশা করেন বলেও অভিযোগ কর্ণের। দাবি, কবিশকে সেই পরিবেশে রেখে নষ্ট করছেন নিশা। সুত্র: আনন্দবাজার।

Back to top button