সপ্তম শ্রেণীর ছাত্রীকে রাতভর ধর্ষণ, গ্রেফতার ২

লালমনিরহাটের কালীগঞ্জে ৭ম শ্রেণীর এক ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় ২ জনকে গ্রেফতার করেছে কালীগঞ্জ থানা পুলিশ। মঙ্গলবার (২৫ জানুয়ারি) দুপুরে ধর্ষণের শিকার ছাত্রীর মা মাজেদা বেগম বাদী হয়ে কালীগঞ্জ থানায় দুই জনকে আসামী করে একটি মামলা দায়ের করেন। অভিযোগ দেওয়ার পরপরই তা আমলে নিয়ে কালীগঞ্জ থানা পুলিশ এজাহারে উল্লেখিত আসামীদের গ্রেফতার করে।

ধর্ষণের অভিযোগে গ্রেফতারকৃত আসামীরা উপজেলার হররাম এলাকার আঞ্জু মিয়ার ছেলে রিপন মিয়া (২৮) এবং একই এলাকার আহম্মদ আলীর ছেলে মনির উদ্দিন (১৮)।

এজাহার সুত্রে জানা গেছে, উপজেলার চন্দ্রপুর ইউনিয়নের হররাম গ্রামের স্কুল পড়ুয়া সপ্তম শ্রেণীর এক শিক্ষার্থীকে গত ২৩ জানুয়ারি রাত সাড়ে ৮টার দিকে আসামী রিপন মিয়া ও মনির উদ্দিন ওই এলাকায় একটি পরিত্যক্ত বাড়িতে নিয়ে গিয়ে জোরপূর্বক একাধিকবার ধর্ষন করে। ২৩ জানুয়ারি রাতে বাড়ীর লোকজন অনেক খোঁজাখুঁজি করেও ওই রাতে তার কোন খোঁজ পায়নি।

রাতভর ধর্ষণের পর অসুস্থ অবস্থায় ২৪ জানুয়ারি সকাল ৬টার দিকে পাশের একটি সতী নদীর ধাপে ওই ছাত্রীকে ফেলে রেখে পালিয়ে যাওয়ার সময় স্থানীয় ব্যক্তি জয়নাল, আছর আলী ও এরশাদ তাদের দেখে ফেলে। পরে তারা ওই ছাত্রীর বাড়ীতে খবর দেন এবং অসুস্থ অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে কালীগঞ্জ হাসপাতালের জরুরী বিভাগে ভর্তি করে।

সেখানে তার অবস্থা বেগতিক হওয়ায় কর্তব্যরত চিকিৎসক উন্নত চিকিৎসার জন্য লালমনিরহাট সদর হাসপাতালে রেফার্ড করেন। সদর হাসপাতালের ভর্তি রেজিঃ নং-১৪২। কালীগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) গোলাম রসুল ধর্ষন মামলা ও ২ জনকে গ্রেফতারের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

Back to top button