ফেব্রুয়ারির মাসের যে সপ্তাহে আসতে পারে এইচএসসির ফল

আগামী ফেব্রুয়ারি মাসের প্রথম সপ্তাহে উচ্চমাধ্যমিক সার্টিফিকেট (এইচএসসি) ও সমমানের ফল প্রকাশ হতে পারে এবং সেই লক্ষ্যে আজ মঙ্গলবার দেশের সব শিক্ষা বোর্ডের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রকরা বৈঠকে বসছেন বলে জানা গেছে।

করোনা সংক্রমণের কারণে শিক্ষার্থীদের সশরীরে ক্লাস না হাওয়া বিভাগভিত্তিক তিনটি নৈর্বাচনিক বিষয়ে ছয়টি পত্রে এইচএসসি ও সমমান পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। ২ ডিসেম্বর এইচএসসি ও সমমান পরীক্ষা শুরু হয়ে ৩০ ডিসেম্বর শেষ হয়। ওই দিন শিক্ষামন্ত্রী জানিয়েছিলেন, পরীক্ষা শেষ হওয়ার এক মাসের মধ্যে ফল প্রকাশ করা হবে।

ফল প্রকাশের প্রস্তুতির বিষয়ে আন্তঃশিক্ষা বোর্ড সমন্বয় কমিটির সভাপতি এবং ঢাকা মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান অধ্যাপক নেহাল আহমেদ গণমাধ্যমকে জানান, ৩০ দিনের মধ্যে যাতে ফল প্রকাশ করা যায় সে লক্ষ্যে কাজ করা হচ্ছে।

আশা করা যাচ্ছে, ফেব্রুয়ারির প্রথম সপ্তাহের মধ্যে পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশ করা যাবে। তিনি বলেন, তবে এইচএসসি পরীক্ষার্থীদের তিনটি বিষয়ের পরীক্ষা হলেও তাদের পত্র কিন্তু ছয়টি। তাই কিছুটা সময় লাগতে পারে।

উল্লেখ্য, গত ২ ডিসেম্বর থেকে সারা দেশে এইচএসসি ও সমমান পরীক্ষা শুরু হয়ে ৩০ ডিসেম্বর পর্যন্ত এই পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। করোনাভাইরাসের কারণে এবার নিজ নিজ বিভাগের তিনটি বিষয়ের উপর পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

২০২১ শিক্ষাবর্ষে ১১টি শিক্ষা বোর্ডে ১৩ লাখ ৯৯ হাজারের বেশি শিক্ষার্থী এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষায় অংশ নেন। এবার দেশের সাধারণ ৯টি শিক্ষা বোর্ডে শুধু এইচএসসি পরীক্ষার্থী ছিলেন ১১ লাখ ৩৮ হাজার ১৭ জন। আর মাদ্রাসা বোর্ডের অধীনে আলিম পরীক্ষার্থী ছিলেন এক লাখ ১৩ হাজার ১৪৪ জন। এছাড়া, কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের এইচএসসি বিএম ও ভোকেশনাল পরীক্ষা দিয়েছেন এক লাখ ৪৮ হাজার ৫২৯ জন।

Back to top button