পরকীয়ার ৪ অজুহাত

বিয়ের আগের সম্পর্ক হোক কিংবা বিবাহের পর দাম্পত্যই হোক, বিশ্বাস ও ভালোবাসা দুটোই গুরুত্বপূর্ণ। এর অভাব হলে সম্পর্কটাও খারাপ হতে থাকে। হয়তো তিনি অন্য কোনো মহিলার দিকেও ঝুঁকছেন। কিন্তু কোনোভাবেই তিনি মেনে নিতে নারাজ! জেনে নিন এ সময়ে ঠিক কী অজুহাত দেন তারা-

কাজের অজুহাত
কাজের চাপের থেকে সহজ কোনো অজুহাত আর হয় না। বেশিরভাগ দিনই অফিস থেকে সাধারণ সময়ে বাড়ি ফিরছেন না। ফিরতে ফিরতে প্রায় প্রতিদিনই অনেক রাত হয়ে যাচ্ছে। সাধারণত এসব অজুহাতের পেছনে অধিকাংশই সময়ই পরকীয় থাকে। তবে সবাই যে পরকীয়া করেন, এমনটিও নয়। কারো কারো সত্যিকার অর্থেই ব্যস্ততা থাকতে পারে।

ব্যায়াম করার প্রতি আগ্রহী
অনেক পুরুষই ব্যায়াম করে নিজের শরীর ফিট রাখতে চেষ্টা করেন। আর এতে কোনও ভুল নেই। প্রতিদিনই ব্যায়াম করে নিজের শরীর ফিট রাখা একটি ভালো অভ্যাস। কিন্তু আপনার স্বামীর মধ্যে এই অভ্যাসটা কি বরাবরই ছিল? নাকি নতুন করে এই অভ্যাসটা দেখছেন আপনি? যদি হঠাৎ বাড়ে তাহলে একবার তার দিকে নজর রাখতেই পারেন আপনি।

হঠাৎ করেই অশান্তি
কথা নেই বার্তা নেই, ছোট বিষয়েও রেগে যাচ্ছেন আপনার স্বামী। আপনি এর কারণও বুঝতে পারছেন না। প্রশ্ন করলে আরও রেগে যাচ্ছেন। যদি পরিস্থিতি সত্যিকারেরই এরকম হয়, তাহলে একটু সতর্ক হন। তিনি অশান্তি করলে, আপনি চুপ করে থাকুন। পরে এর উত্তর দেওয়ার চেষ্টা করুন।

অফিসের কাজে বাইরে
না, অফিসের কাজে বাইরে যেতে হতেই পারে। কিন্তু তাই বলে যে, সব সময়ই বাইরে থাকবেন, এরকম তো কথা নয়। অফিসের কাজে বাইরে যেতে পারেন তিনি। কিন্তু তা যদি খুবই ঘন ঘন হয়ে যায়। তখন একটু সতর্ক থাকতে হবে আপনাকে। খেয়াল রাখুন তার প্রতিটি পদক্ষেপে। প্রয়োজনে খোজ নিন, কেন তিনি বাইরে যাচ্ছেন? সত্যিই কি অফিসের কাজে বা বিজনেস ট্রিপে, নাকি অন্য কোনও কারণ?

Back to top button