যত কোটি টাকায় বিক্রি হয়ে গেল বগুড়ার প্রথম চার তারা হোটেল নাজ গার্ডেন

বগুড়ার বিশিষ্ট প্রভাবশালী ব্যবসায়ী শোকরানা বিএনপি ছাড়ার পর এবার চার তারা হোটেল নাজ গার্ডেন বিক্রি করে দিয়েছেন। সম্প্রতি বগুড়ার প্রথম চার তারা হোটেলটি কিনে নেয় দেশের শীর্ষস্থানীয় ব্যবসা প্রতিষ্ঠান আকিজ শিল্পগোষ্ঠী। গত সোমবার এ সংক্রান্ত একটি ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়। একই সঙ্গে এক সময়ের প্রভাবশালী এই ব্যবসায়ী বগুড়া শহরে তাঁর অন্যান্য দামি সম্পত্তি বিক্রি করে দিচ্ছেন বলে নিশ্চিত হওয়া গেছে।

 তিনি শিগগিরই পরিবারের অন্য সদস্যদের সঙ্গে কানাডায় স্থায়ী হচ্ছেন। শোকরানার বগুড়ায় একাধিক ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান ছাড়াও চার তারা মানের হোটেল নাজ গার্ডেন রয়েছে। এসব প্রতিষ্ঠান বিক্রির জন্য তিনি অনেক আগে থেকেই ক্রেতা খুঁজছিলেন। নাম প্রকাশ না করার শর্তে শোকরানার একজন বন্ধু জানান, রাজনীতি থেকে অবসরের পর তিনি তাঁর বড় সম্পত্তি নাজ গার্ডেনটি সম্প্রতি দেশের অন্যতম বৃহৎ শিল্পগ্রুপ আকিজ শিল্পগোষ্ঠীর কাছে বিক্রি করে দিয়েছেন।

শিগগিরই আকিজ গ্রুপ তাদের সাইনবোর্ড লাগিয়ে মালিকানার আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দেবে। তবে এই ঘোষণার আগ মুহূর্ত পর্যন্ত গোপনীয়তা অবলম্বন করা হচ্ছে। এর আগে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিএনপির মনোনয়ন না পেয়ে অভিমানে শোকরানা সব সম্পদ বিক্রি করে দেশ ত্যাগের সিদ্ধান্ত নেন।

সূত্র জানায়, প্রায় ১৪ একর জমির ওপর নির্মিত ফোর স্টার হোটেল নাজ গার্ডেন এরই মধ্যে ১৫৭ কোটি টাকা দাম উঠেছে। তাঁর প্রত্যাশা, এর দাম ২০০ কোটি টাকা হতে পারে। ১৫৭ থেকে ২০০ কোটি টাকা দাম নির্ধারণ করে প্রতিষ্ঠানটি বিক্রি করা হয়েছে বিষয়টি নিশ্চিত।

সোমবার বিকেলে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া একটি ক্রয় সাইনবোর্ডকে কেন্দ্র করে অনুসন্ধান চালানো হয়। বিকেলে হোটেলে গিয়ে দেখা গেছে, মাঝের মূল ভবনের ছাদে চারজন মিস্ত্রি কাজ করছেন সাইনবোর্ড লাগানোর। তবে সন্ধ্যা পর্যন্ত সেটি ঝোলানো হয়নি।

সিকিউরিটি গার্ডের পোশাক পরা একজন গেটম্যান জানান, তাঁদের এই প্রতিষ্ঠান বিক্রি হয়ে গেছে। দু-এক দিনের মধ্যে এই সাইনবোর্ডটি ঝোলানো হবে। বিক্রির ব্যাপারে বিস্তারিত আর কোনো তথ্য তিনি জানাতে পারেননি।এদিকে নাজ গার্ডেনের নতুন ক্রেতা তাঁদের প্রথম কর্মকাণ্ডের অংশ হিসেবে নাজ গার্ডেনের বারটি বন্ধ করে দিয়েছেন। বারে আগতদের এই তথ্য জানিয়ে দেওয়া হচ্ছে। এই বারের সাবেক ম্যানেজার বাদল জানিয়েছেন, সোমবার থেকেই বারের সব কর্মকাণ্ড বন্ধ রাখতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

এদিকে আকিজ শিল্পগোষ্ঠীর বগুড়া অফিসের একাধিক কর্মকর্তার সঙ্গে যোগাযোগ করা হলেও তাঁরা এ ব্যাপারে মুখ খোলেননি। নাজ গার্ডেন কেনা সম্পর্কে কোনো তথ্য তাঁদের জানা নেই—এমন দাবি করেছেন। সোমবার শোকরানার ব্যক্তিগত মোবাইল নম্বরে কল করলে সেটি বন্ধ পাওয়া গেছে।

Back to top button