সাফারি পার্কে এবার সিংহীর মৃত্যু

গাজীপুরের শ্রীপুরে অবস্থিত বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব সাফারি পার্কে অসুস্থ এক সিংহীর মৃত্যু হয়েছে। বৃহস্পতিবার দুপুর ১টায় পার্কের আফ্রিকান সাফারিতে সিংহীটির মৃত্যু হয়। এটির বয়স হয়েছিল আনুমানিক ১১ বছর। পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয়ের জ্যেষ্ঠ তথ্য কর্মকর্তা দীপংকর বর এতথ্য নিশ্চিত করেন।

তিনি জানান, গত বছরের ১১ আগস্ট সিংহীটির প্রথম অসুস্থতা শনাক্ত হয়। পেটের নিচে পানি জমে থলির মতো অংশ ঝুলে থাকতে দেখা যায়। বিভিন্ন সময় বাম পায়ে সমস্যা দেখা দেয়। মুখ দিয়ে রক্ত বের হয় এবং শ্বাসকষ্টজনিত লক্ষণ দেখা যায়। পরে চিকিৎসা চলতে থাকে।

বুধবার বিকেলে সিংহীটি চার পা ঝাঁকুনি দিয়ে শুয়ে কাঁপতে থাকে। পার্কের ভেটেরিনারি সার্জন ডা. মোহাম্মদ মোস্তাফিজুর রহমান চিকিৎসা দেন। বৃহস্পতিবার সকাল থেকে আগের মতোই শ্বাসকষ্ট শুরু হলে দুপুর ১টার দিকে সিংহীটি মারা যায়।প্রসঙ্গত, গত ২ জানুয়ারি থেকে ২৪ জানুয়ারি পর্যন্ত বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব সাফারি পার্কের ১১টি জেব্রা ও একটি বাঘ মারা গেছে। সেই রেশ কাটতে না কাটতেই এবার সিংহী মারা যাওয়ার খবর এলো।

জেব্রা ও বাঘের মৃত্যুর প্রকৃত কারণ উদঘাটন এবং দায়িত্বে অবহেলাকারীদের সনাক্তকরণের লক্ষ্যে গঠিত মন্ত্রণালয়ের তদন্ত কমিটির সুষ্ঠু তদন্তের স্বার্থে গত ৩১জানুয়ারি পার্কের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সহকারী বন সংরক্ষক তবিবুর রহমান ও সাফারি পার্কের ভেটেরিনারী অফিসার ডাঃ হাতেম সাজ্জাদ মোঃ জুলকারনাইনকে বন অধিদপ্তরের সদর দপ্তরে সংযুক্ত করা হয়।

তবিবুর রহমানের স্থলে ফরিদপুর বন বিভাগের সহকারী বন সংরক্ষক রফিকুল ইসলামকে ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ও ডাঃ হাতেম সাজ্জাদ মোঃ জুলকারনাইনের স্থলে কক্সবাজারের চকোরিয়ার বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব সাফারী পার্কের ভেটেরিনারী অফিসার ডাঃ মোস্তাফিজুর রহমানকে দায়িত্ব দেয়া হয়।

গত বুধবার পার্কের প্রকল্প পরিচালককেও তাঁর দায়িত্ব থেকে সরিয়ে দিয়ে বন্যপ্রাণী ও প্রকৃতি সংরক্ষণ অঞ্চল, ঢাকা এর বন সংরক্ষক (চলতি দায়িত্ব) মোল্যা রেজাউল করিমকে তার নিজ দায়িত্বের অতিরিক্ত হিসেবে প্রকল্প পরিচালকের দায়িত্ব প্রদান করা হয়েছে।

Back to top button