পুলিশ নৌকার সমর্থকদের কাউকেই গ্রেফতার করেনি

নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন নির্বাচনে স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী অ্যাডভোকেট তৈমূর আলম খন্দকার শহরের খানপুর এলাকায় নির্বাচনী পথসভায় বের হন। বুধবার (১২ জানুয়ারি) পথসভায় সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে বলেন, পুলিশ নৌকার পক্ষের কোনো লোকজনকে গ্রেফতার করেনি, তাদের বাড়িতে যায়নি। আমার সিদ্ধিরগঞ্জের প্রধান সমন্বয়ককে গ্রেফতার করা হয়েছে। আমার লোকজনের বাড়ি বাড়ি পুলিশ যাচ্ছে।

এটা দিনের আলোর মত পরিষ্কার। তারপরেও যদি কেউ বলেন আমার লোকজনকে হয়রানি করা হচ্ছে না সেটা আপনারাই বিবেচনা করে দেখবেন। তৈমূর বলেন, নারায়ণগঞ্জের জনগণ আঠারো বছরের ক্ষোভ থেকে অবসান চান। তাই সকলে আন্তরিকভাবেই এই নির্বাচনে অংশগ্রহণ করছেন। আশা রাখবো এই নির্বাচন কমিশন জনগণের আশা আকাঙ্ক্ষার প্রতিফলন ঘটাতে কাজ করার জন্য প্রশাসনকে নির্দেশ দিবেন।

নির্বাচনে যেন লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড থাকে। জনগণ যেন ভোট দিতে পারে এবং কোনো ইঞ্জিনিয়ারিং যেন না হয় সেজন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করি। তিনি বলেন, আমার নির্বাচনি প্রচারণায় দলমত নির্বিশেষে সবাই অংশ গ্রহণ করতেছে। পুলিশ প্রশাসন আমাদের নেতাকর্মীদের ধড়-পাকড় করছে। তারা ইতিমধ্যে অনেককেই গ্রেফতার করেছে।

অনেকে বাড়ি থেকে পলাতক। পলাতক থেকেই তারা আমার প্রচারণায় অংশ নিচ্ছে। এসময় তিনি নির্বাচনের এজেন্ট নিয়ে বলেন, আমি তিন সেট করে পোলিং এজেন্ট ঠিক করে রেখেছি। একজনকে বের করে দেয়া হলে আরেকজন কাজ করবে। শুধু তাই নয়, কেন্দ্র রক্ষার জন্য আলাদা কমিটি করা হয়েছে।

তারা সেখানে কেন্দ্র রক্ষা করবে। আমাদের চীফ এজেন্ট এটিএম কামাল নির্বাচন কমিশনের সাথে সার্বক্ষণিক যোগাযোগ রাখছেন। কেন্দ্র যেন দখল না হয় সেজন্য জনগণ পাহাড়ায় থাকবে।

সুত্রঃ বিডি২৪লাইভ

Back to top button