বিশ্বজুড়ে করোনা সংক্রমণ ছাড়ালো ৪০ কোটি

চীন থেকে প্রাদুর্ভাব হওয়া করোনাভাইরাসের নতুন অতিসংক্রামক ধরন ওমিক্রন শনাক্ত হওয়ার পর থেকে বিশ্বে দৈনিক সংক্রমণ ও মৃত্যুর সংখ্যা বেড়েই চলেছে। গত ২৪ ঘণ্টায় সারা বিশ্বে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছে প্রায় সাড়ে ১১ হাজার মানুষ। একই সময়ে ভাইরাসটিতে নতুন করে আক্রান্ত হয়েছে প্রায় সাড়ে ২১ লাখ।

 এসময়ে বিশ্বজুড়ে সবচেয়ে বেশি সংক্রমণের ঘটনা ঘটেছে জার্মানিতে। অন্যদিকে দৈনিক প্রাণহানির তালিকায় শীর্ষে রয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। প্রাণহানির তালিকায় এরপরই রয়েছে ভারত, ব্রাজিল, রাশিয়া, ইতালি, স্পেন ও আর্জেন্টিনা। জরিপ পর্যালোচনাকারী সংস্থা ওয়ার্ল্ডোমিটারের আজ বুধবার (৯ ফেব্রুয়ারি) সকালের তথ্য অনুযায়ী, মহামারির শুরু থেকে এ পর্যন্ত ভাইরাসে আক্রান্ত মোট রোগীর সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৪০ কোটি ২ লাখ ৯৬ হাজার ৮৭ জনে। আর মৃতের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ৫৭ লাখ ৮১ হাজার ২২১ জনে। ভাইরাসটিতে আক্রান্তদের মধ্যে এ পর্যন্ত সুস্থ হয়ে উঠেছে ৩২ কোটি ৮ লাখ ১৭ হাজার ২৮২ জন।

করোনায় এখন পর্যন্ত সবচেয়ে বেশি আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা যুক্তরাষ্ট্রে। দেশটিতে গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে করোনায় আক্রান্ত হয়েছে ১ লাখ ৬২ হাজার ৪৯৭ জন এবং মারা গেছে ২ হাজার ৬৯৭ জন। মহামারিতে সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত এই দেশটিতে এখন পর্যন্ত ৭ কোটি ৮৫ লাখ ৩৯ হাজার ৫২১ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছে এবং ৯ লাখ ৩২ হাজার ৩৬৩ জন মারা গেছে।

বিশ্বের দ্বিতীয় অন্যতম জনবহুল দেশ ভারত করোনায় আক্রান্ত ও মৃতের তালিকায় রয়েছে যথাক্রমে দ্বিতীয় ও তৃতীয় স্থানে। দেশটিতে এখন পর্যন্ত মোট আক্রান্ত ৪ কোটি ২৪ লাখ ৯ হাজার ৫২ জন এবং মারা গেছেন ৫ লাখ ৫ হাজার ৩০৮ জন।ল্যাটিন আমেরিকার দেশ ব্রাজিল করোনায় আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যার দেশের তালিকায় রয়েছে যথাক্রমে তৃতীয় ও দ্বিতীয় স্থানে। এ পর্যন্ত দেশটিতে মোট শনাক্ত রোগীর সংখ্যা ২ কোটি ৬৭ লাখ ৭৬ হাজার ৬২০ জন এবং মৃত্যু হয়েছে ৬ লাখ ৩৩ হাজার ৮৯৪ জনের।

আক্রান্ত দেশের তালিকায় ফ্রান্স চতুর্থ স্থানে উঠে এসেছে। মহামারির শুরু থেকে এই দেশটিতে এখন পর্যন্ত ২ কোটি ৮০ লাখ ৪ হাজার ৩৭২ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছে এবং ১ লাখ ৩২ হাজার ৯২৩ জন মারা গেছে।আক্রান্ত দেশের তালিকায় যুক্তরাজ্য আছে পঞ্চম স্থানে। মহামারির শুরু থেকে দেশটিতে এখন পর্যন্ত ১ কোটি ৭৯ লাখ ৩২ হাজার ৮০৩ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন এবং ১ লাখ ৫৮ হাজার ৬৭৭ জন মারা গেছেন।

আক্রান্তের তালিকায় ষষ্ঠ স্থানে আছে রাশিয়া। করোনা মহামারি শুরুর পর থেকে এ পর্যন্ত দেশটিতে মোট শনাক্ত রোগীর সংখ্যা ১ কোটি ৩১ লাখ ৪৭ হাজার ৬৬৬ জন এবং মৃত্যু হয়েছে ৩ লাখ ৩৬ হাজার ৭২১ জনের।এদিকে গত ২৪ ঘণ্টায় বিশ্বে করোনায় সবচেয়ে বেশি সংক্রমণের ঘটনা ঘটেছে জার্মানিতে। এই সময়ের মধ্যে দেশটিতে নতুন করে আক্রান্ত হয়েছে ২ লাখ ১২ হাজার ৭২৪ জন ও মারা গেছে ২৩১ জন। ইউরোপের এই দেশটিতে এখন পর্যন্ত ১ কোটি ১৪ লাখ ১১ হাজার ৪৬৪ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন এবং ১ লাখ ১৯ হাজার ৭২৬ জন মারা গেছেন।

চীনে করোনায় প্রথম কোনও রোগীর মৃত্যু হয় ২০২০ সালের ৯ জানুয়ারি। তবে তার ঘোষণা আসে ১১ জানুয়ারি। আর ১৩ জানুয়ারি চীনের বাইরে প্রথম করোনা রোগী শনাক্ত হয় থাইল্যান্ডে। পরে বিভিন্ন দেশে করোনা ছড়িয়ে পড়ে। গত ২ ফেব্রুয়ারি চীনের বাইরে করোনায় প্রথম কোনও রোগীর মৃত্যুর ঘটনা ঘটে ফিলিপাইনে।২০২০ সালের ১১ মার্চ বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও) করোনাকে ‘মহামারি’ হিসেবে ঘোষণা করে। এর আগে ২০ জানুয়ারি জরুরি পরিস্থিতি ঘোষণা করে ডব্লিউএইচও।

Back to top button