যে গ্রামে ৩০ বছর ধরে পুরুষের প্রবেশ নিষিদ্ধ

গ্রামটির নাম উমোজা। কেনিয়ার উত্তরাঞ্চলীয় সামবুরুর ঘন জঙ্গলে গড়ে ওঠা এই গ্রামে শুধু নারীরাই বাস করেন। এখানে দীর্ঘ ৩০ বছর ধরে কোনও পুরুষের প্রবেশের অনুমতি নেই। তারপরও সেই গ্রামের নারীরা গর্ভবতী হয়ে পড়ছেন! বিষয়টি অবিশ্বাস্য লাগলেও আফ্রিকায় এমন একটি গ্রাম আছে।

জানা গেছে, প্রথমে মাত্র ১৫ নারী নিয়ে গড়ে উঠলেও বর্তমানে প্রায় আড়াইশ’ নারীর বসবাস এই গ্রামে। ১৯৯০ সালে গ্রামটি গড়ে তোলেন ওই ১৫ নারী। ব্রিটিশ সেনারা এই ১৫ জন নারীকে ধর্ষণ এবং শারীরিক নির্যাতন করেছিলেন বলে অভিযোগ। তখন থেকেই পুরুষদের প্রতি ঘৃণা জন্মায় এই নারীদের মনে। এরপর ঘন জঙ্গলের মধ্যে একটি গ্রাম গড়ে তোলেন তারা।

সেখানে অত্যাচারিত নারীদের ঠাঁই দেওয়া হয়। একই সঙ্গে পুরুষদের প্রবেশ পুরোপুরি নিষিদ্ধ। পুরুষদের যেখানে কোনওভাবেই প্রবেশের অনুমতি নেই, সেখানে কীভাবে গর্ভবতী হচ্ছেন নারীরা? এই প্রশ্নটা স্বাভাবিকভাবেই আসবে।

তবে এতে অলৌকিক কিছু নেই। কেননা, পুরুষের প্রবেশ নিষিদ্ধ হলেও রাতের বেলায় বহু পুরুষ চুপিসারে এই গ্রামে ঢোকেন। নারীরা তাধের মধ্য থেকে নিজেদের পছন্দের মানুষের সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক তৈরি করেন। গর্ভবতী হয়ে পড়ার পর ওই পুরুষের সঙ্গে আর কোনও সম্পর্ক রাখেন না তারা। নারীরা সন্তানদের জন্ম দেন এবং নিজেরাই তাদের লালনপালন করেন।

সূত্র: দ্য গার্ডিয়ান

Back to top button