চুয়াডাঙ্গার শিশু আবু হুরায়রা হত্যা রহস্য উন্মোচন।

চুয়াডাঙ্গা প্রতিনিধি: চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলার তালতলা এলাকার নিখোঁজ শিশু আবু হুরায়রা হত্যা রহস্য উন্মোচন করা হয়েছে। গ্রেফতার করা হয়েছে হত্যাকারী মোমেনকে। গতকাল গভীর রাতে চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলার তালতলা এলাকার কবরস্থান থেকে শিশু আবু হুরায়রার বস্তাবন্দি লাশ উদ্ধার করা হয়।

প্রসঙ্গত, গত ১৯ জানুয়ারী থেকে নিখোঁজ ছিল চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলার তালতলা এলাকার আব্দুল বারেক এর সন্তান স্কুলছাত্র আবু হুরায়রা। পেশায় রাজমিস্ত্রীর সহযোগী মোমেন। তিনি চুয়াডাঙ্গা সদর থানার তালতলা এলাকার শহীদুল এর ছেলে। গত ২ বছর আগে এক ঈদের রাতে উচ্চস্বরে সাউন্ড বক্স বাজাচ্ছিলেন মোমেনসহ তার বন্ধুরা। এতে ক্ষিপ্ত হন আবু হুরায়রার বাবা আব্দুল বারেক । রাগে তিনি সেই সাউন্ড বক্সের টেবিলে লাথি মারেন।

এতে সাউন্ড বক্সটির টেবিল ভেঙে যায়। অনুষ্ঠানও পণ্ড হয়ে যায়। এতে মোমেনের তিন হাজার টাকা ক্ষতি হয়। এই ঘটনায় মোমেন মনে মনে ক্ষিপ্ত হন এবং ‘প্রতিশোধ’ নিতে সুযোগ খুঁজতে থাকেন। আর এজন্য তিনি টার্গেট করেন আব্দুল বারেক এর ছেলে আবু হুরায়রাকে। গত ১৯ জানুয়ারী বিকেলে আবু হুরায়রা খেলতে বের হয়। এসময় মোমিন তাকে একা পেয়ে খরগোশের লোভ দেখায়।

আবু হুরায়রাকে খরগোশ দিবে বলে তালতলা সরকারী কবরস্থানে নিয়ে যান। এরপর হাত-পা বেঁধে গলা টিপে শ্বাসরোধ করে হত্যা করেন। হত্যার পর প্রথমে লাশ রেখে চলে যান। পরবর্তীতে রাত ৮ টার দিকে আবারও এসে লাশ পুঁতে রাখেন।গোপন সংবাদের ভিত্তিতে সন্দেহভাজন মোমেনকে গত ১৩ তারিখ তালতলা এলাকা থেকে গ্রেফতার করা হয়। পরে জিজ্ঞাসাবাসে হত্যার কথা স্বীকার করেন তিনি।

পরে তার দেখিয়ে দেওয়া স্থান থেকে লাশ উদ্ধার করা হয়। উদ্ধার কাজে জনাব আনিছুজ্জামান, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল), চুয়াডাংগা, জনাব মোহাম্মদ মহসীন পিপিএম(বার), অফিসার ইনচার্জ, জনাব সুখেন্দু বসু, পুলিশ পরিদর্শক (অপারেশন),চুয়াডাঙ্গাগণ উপস্থিত ছিলেন। এছাড়াও তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই (নিঃ)/ জনাব মোঃ সাইদুজ্জামান ও এসআই (নিঃ)/ গোপাল চন্দ্র মন্ডল সহ অফিসার ফোর্স।

মোঃ আব্দুল্লাহ হক (চুয়াডাঙ্গা)

Back to top button