কানাডার অটোয়া থেকে বিক্ষোভকারীদের সরিয়ে দিল পুলিশ

কানাডার পুলিশ বাধ্যতামূলক টিকানীতির বিরুদ্ধে রাজধানী অটোয়ায় পার্লামেন্টের সামনে থেকে বিক্ষোভকারীদের সরিয়ে দিয়েছে। তিন সপ্তাহ ধরে জায়গাটি দখলে নিয়ে বিক্ষোভ করছিলেন ট্রাকচালকরা।

পুলিশ জানিয়েছে, পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে নিয়ে আসার জন্য সরকার জরুরি আইন বলবৎ করার পর শুক্রবার সকালে অভিযান শুরু হয়েছে। সেই অভিযানে ১৭০ জনের বেশি বিক্ষোভকারীকে আটক করা হয়েছে। এ ছাড়া ৩৮টি গাড়ি এবং কয়েকটি ঘোড়া জব্দ করেছেন কর্মকর্তারা।

বিক্ষোভকারীদের অনেককে ধ্বস্তাধ্বস্তি করার কারণে মাটিতে চেপে ধরে হাত পেছনে বেঁধেছে পুলিশ। পুলিশের অভিযোগ, বিক্ষোভকারীরা শিশুদের ঢাল হিসেবে ব্যবহার করছে। তবে অটোয়ায় অভিযান শান্তিপূর্ণভাবে চলছে বলে দাবি করেছে পুলিশ।

অভিযানে ১৭০ জনের বেশি বিক্ষোভকারীকে আটক করা হয়েছে অটোয়ার অন্তর্বর্তী পুলিশ প্রধান স্টিভ বেল বলেছেন, নির্দিষ্ট কোনো সময়ের মধ্যে আমরা অভিযান শেষ করার ব্যাপারে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ হইনি। এটি (বিক্ষোভ) শেষ না হওয়া পর্যন্ত আমরা অভিযানে আছি।

তিনি আরো বলেছেন, বিক্ষোভকারীদের অনেকেই পার্লামেন্টের আশপাশের এলাকা থেকে অন্য এলাকায় চলে গেছেন। সেই এলাকাগুলো থেকেও তাদের সরিয়ে দেওয়া হবে।

এর আগে গতকাল তিনি বলেছেন, অভিযান পরিকল্পনামাফিক চলবে। পরিস্থিতি ঠিক হতে সময় লাগবে। বিক্ষোভ নিয়ন্ত্রণে এনে নগরের পরিবেশ স্বাভাবিক করতে ব্যর্থতার অভিযোগের মুখে কয়েক দিন আগে শহরের পুলিশ প্রধান পদত্যাগ করেন। তারপর অন্তর্বর্তীকালীন পুলিশ প্রধান হন স্টিভ বেল।

গত শুক্রবার পুলিশের যে অভিযান শুরু হয়েছে, তা কানাডার ইতিহাসে সবচেয়ে বড় পুলিশি অভিযানগুলোর অন্যতম।পুলিশের পক্ষ থেকে টুইট করে জানানো হয়েছে, তারা কিছুসংখ্যক বিক্ষোভকারীর ওপর মরিচের গুঁড়া ব্যবহার করেছে। বিক্ষোভকারীদের আক্রমণাত্মক ব্যবহার এবং পুলিশ কর্মকর্তাদের নিরাপত্তার জন্য এটি করা হয়েছে।

সূত্র : বিবিসি।

Back to top button