আলু তুলে নারীরা বাড়তি উপার্জন করছেন

গৃহবধূ রিমা আক্তার সংসারের কাজ করার পাশাপাশি অন্যের জমিতে আলু তোলার কাজ করছেন। গত ২৫ দিনে ৩ ঘণ্টা করে আলু তোলার কাজ করে ৬ হাজার মত টাকা উপার্জন করেছেন তিনি। রিমা ঠাকুরগাঁওয়ের রাণীশংকৈল উপজেলার ধর্মগড় ইউনিয়নের ভরনিয়া গ্রামের আতিক রহমানের স্ত্রী। তাঁর মতো ওই গ্রামের সোনিয়া আক্তার, মনোয়ারা বেগম, রানী আক্তারসহ শতাধিক নারী দল বেঁধে চলতি আলু মৌসুমে বাড়ির কাজ করার পাশাপাশি বাড়তি আয় করছেন আলু তোলার কাজ করে।

রবিবার কাশিপুর ইউনিয়নের জগদল গ্রামের আলু চাষি আব্দুল লতিফের আলু তোলার সময় কয়েকজন নারী জানান, তারা ১০ জন নারী দুজন করে শেয়ারে আলু তোলার কাজ করছেন। দুপুর ১২টা পর্যন্ত প্রতিজন ১০ বস্তা করে আলু তুলেছেন। যার পারিশ্রমিক ২০০ টাকা। কেউ কেউ আরো বেশি আলু তুলছেন।

রিমার আলু তোলার সঙ্গী সোনিয়া আক্তার জানান, তিনি গতকাল শনিবার ১৮ বস্তা আলু তুলেছেন আর চলতি মৌসুমে প্রায় দুই শ’ বস্তা আলু তোলার কাজ করে চার হাজার টাকা উপার্জন করেছেন। আলু চাষি আব্দুল লতিফ জানান, আলু তোলার জন্য ৬০ কেজি ওজনের প্রতি বস্তায় ২০ টাকা মজুরি দিতে হয়, দাম বেশি হলে ৩০ টাকা দেওয়া লাগে।

Back to top button