পার্কে বসে ককটেল বানাচ্ছেন ইউক্রেনের নারীরা

পার্কে বসে ককটেল বাইংরেজি শিক্ষক এরিনা যেদিন একটি নাচের ক্লাস এবং তারপরে একটি পার্টির পরিকল্পনা করেছিলেন সেদিন ভ্লাদিমির পুতিন তার সেনাদের ইউক্রেনে হামলার নির্দেশ দেন। তাই তার সেই ক্লাস ও পার্টি করা হলো না। তিন দিন পর ওই ইংরেজি শিক্ষক একটি পার্কে মোলোটভ (পেট্রল বোমা) ককটেল তৈরি করছিলেন।

এসময় তিনি আরও বহু নারীর সঙ্গে ঘাসের ওপর কুঁকড়ে থেকে ককটেল বানিয়ে যাচ্ছেন। এমন দৃশ্য ইউরোপের অধিকাংশের কাছেই অকল্পনীয়। তারা একবারও এসবের চিন্তাও করেনি। এখন তারা কিয়েভের দক্ষিণপূর্বাঞ্চলীয় শহর
দিনিপ্রোতে রাশিয়ান সেনাদের অগ্রসর হওয়ার বিরুদ্ধে আত্মরক্ষার জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছেন।

এরিনা বলেন, কেউ ভাবেনি আমরা এভাবে সময় কাটব। পলিস্টাইরিনের সাদা ধুলোয় ভরা মুখ নিয়ে এরিনা বলেন, মনে হচ্ছে এখন এটাই একমাত্র গুরুত্বপূর্ণ কাজ। এটা বেশ ভয়ঙ্কর। আমি মনে করি আমরা সত্যিই বুঝতে পারি না যে আমরা কি করছি? কিছু করা দরকার আমাদের তাই এগুলো করছি।

কয়েক মিটার দূরে থাকা এলেনা ও ইউলিয়া নামের আরও দুই নারী জানান, তারা তাদের বাচ্চাদের দাদা-দাদির কাছে রেখে আসবেন এবং এই অস্ত্র তৈরি করতে সাহায্য করবেন। এলেনা আরও বলেন, ঘরে বসে কিছু না করা আরও ভয়ঙ্কর হবে।

Back to top button