প্রথম এমন ঘটনার স্বাক্ষী হলেন তামিম

আইসিসি ওয়ানডে সুপার লিগে নিজেদের পয়েন্ট আরও বাড়িয়ে নেয়ার লক্ষ্য ছিল টাইগারদের। কিন্তু তা হয়নি। শেষ ম্যাচে হার নিয়েই মাঠ ছাড়তে হয় বাংলাদেশকে। এতে করে বিশ্বকাপ সুপার লিগের মূল্যবান ১০টি পইয়েন্টও হারাল টাইগাররা।

বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগে (বিপিএল) দারুণ ছন্দে ছিলেন তামিম ইকবাল। তবে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফেরার সিরিজে ভুগেছেন রানের খরায়। সদ্য সমাপ্ত আফগানিস্তান সিরিজে ৩ ম্যাচে তামিম করেছেন ৩১ রান। নেতৃত্বগুণে প্রশংসা কুড়ালেও তার ব্যাটিং মন ভরাতে পারেনি সমর্থকদের।

সিরিজ শেষে তামিম জানালেন, তার ক্যারিয়ারে এমন রান খরার সিরিজ এসেছে খুব কমই। এছাড়া প্রতি ম্যাচেই আফগান পেসার ফজলহক ফারুকির বলে আউট হওয়া নিয়েও হতাশা ঝরেছে তার কণ্ঠে।তামিম বলেন, ‘আমার এত বড় ক্যারিয়ারে এত কম রান করেছি খুব কম সিরিজেই। হয়ত এক-দুইবার হয়েছে। হ্যাঁ আমি হতাশ। এক বোলারের কাছে বারবার আউট হয়ে যাওয়া, আমার কাছে দুর্বলতা পেয়েছে বলে বারবার করতে পেরেছে এটা স্বীকার করতে কোনো লজ্জা নেই।’

৩২ বছর বয়সী এই ওপেনার মনে করেন, ব্যাটিংয়ের এই দুর্বলতা কাটাতে তাকে আরও পরিশ্রম করতে হবে। তবে তা বারবার একইভাবে আউট হওয়ার কারণে নয়, সে কথাও স্পষ্ট করলেন। ব্যাটে রান না থাকায় দলে অবদান রাখতে পারেননি, এই বিষয়টিই বেশি পোড়াচ্ছে তামিমকে।তিনি বলেন, ‘আমার মনে হয় আমাকে কিছু কাজ করতে হবে। প্রত্যেকবার একইরকম ডেলিভারিতে আউট হয়েছি বলে নয়। আমার এখানে অনেক কাজ করার আছে।’

‘এই এরিয়াতেই আমি অনেক রান করেছি। আরেকটু ভালো হতে হবে। আমি কাজ করে যাব। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটার হিসেবে সবসময় আপনাকে কাজ করে যেতে হবে, এটা আমি সবসময় বলি। কাজ করতে থাকলে ভালো করবেন। যেভাবে আউট হয়েছি এটার চেয়ে দলে অবদান রাখতে পারেনি, এতেই বেশি হতাশ। এটাই ক্রিকেট, এটাই জীবন, এটা নিয়েই এগোতে হবে।’– বলেন তামিম।

Back to top button