আর খেলবেন না, পরিণতি ভয়ঙ্কর হবে: গণফোরাম

সরকারের প্রতি হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করে গণফোরামের একাংশ বলেছে, জনগণকে নিয়ে আর খেলবেন না। পরিণতি খুবই ভয়ঙ্কর হবে। বুধবার জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে গণফোরামের উদ্যোগে ‘নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যমূল্যের লাগামহীন ঊর্ধ্বগতি ও তেল-গ্যাস এবং ওয়াসার পানির মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদে’ বিক্ষোভ সমাবেশ ও মিছিলে এসব কথা বলে দলটি।

গণফোরামের একাংশের সভাপতি মোস্তফা মোহসীন মন্টু বলেন, নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যমূল্যের অসহনীয় ঊর্ধ্বগতির অন্যতম কারণ বাজারে সরকারের কোন নিয়ন্ত্রণ নেই। তারা লুটপাট, দুর্নীতি, জনগণের পকেটের পয়সা আত্মসাৎ করায় ব্যস্ত।আমাদের দলীয় স্বার্থে নয় দেশের স্বার্থে একটা জাতীয় নিরপেক্ষ নির্দলীয় সরকারের মাধ্যমে আগামীতে সুষ্ঠু, অবাধ এবং নিরপেক্ষ নির্বাচন করবো বলেও ক্ষমতাসীনদের প্রতি হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেন তিনি।

গণফোরাম সাধারণ সম্পাদক সুব্রত চৌধুরী বলেন, দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতি নিয়ন্ত্রণে এই অবৈধ সরকারের কোন চিন্তাই নেই। কারণ তারা জনগণ নিয়ে ভাবে না। জনজীবনের মান নিয়ন্ত্রণে তাদের কোন উদ্যোগ নেই। জনতার উপর তাদের কোন দায়বদ্ধতাও নেই।

সরকারকে উদ্দেশ্য করে সুব্রত চৌধুরী বলেন, জনগণকে নিয়ে আর খেলবেন না। পরিণতি খুবই ভয়ঙ্কর হবে। পূর্বের স্বৈরাচারদের পতন কিভাবে হয়েছিলো- তা দেখে শিক্ষা নিন। আমরা আপনাদের থেকে কিছুই আশা করি না। শুধু একটাই চাওয়া ক্ষমতা ছেড়ে দিয়ে এদেশের জনগণকে মুক্তি দিন। নইলে জনতা আপনাদেরকে অবৈধ সিংহাসন থেকে টেনে হিচড়ে নামাবে।

মোস্তফা মোহসীন মন্টুর সভাপতিত্বে বিক্ষোভ সমাবেশে গণফোরাম নির্বাহী সভাপতি একেএম জগলুল হায়দার আফ্রিক, মহসীন রশিদ, সভাপতি পরিষদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা খান সিদ্দিকুর রহমান, সিনিয়র যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আইয়ুব খান ফারুক প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

বিক্ষোভ সমাবেশ শেষে গণফোরাম মিছিল নিয়ে শহীদ মিনার অভিমুখে যাত্রা করে। মিছিল থেকে ন্যায্যমূল্যে চাল-ডাল ও তেল দে নইলে গদি ছাইড়া দে, দ্রব্যমূল্যের লুটেরা সিন্ডিকেট ভাঙ্গো, নয়তো এই অবৈধ সংসদ ভেঙ্গে দাও, গ্যাস ও ওয়াসার পানির মূল্য বৃদ্ধি মানে না জনগণ, মন্ত্রীরা সব করে কি খায় দায় ঘুমায় নাকিসহ বিভিন্ন স্লোগানে রাজপথ মুখরিত করে তুলেন নেতাকর্মীরা।কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে গিয়ে পথসভা শেষ হয়। পথসভায় বক্তব্য রাখেন মোস্তফা মোহসীন মন্টু ও সুব্রত চৌধুরী।

সুত্রঃ বাংলাদেশ জার্নাল

Back to top button