কেন ‘গাঙ্গুবাঈ’ হতে চাননি দীপিকা-প্রিয়াঙ্কা-রানি

বলিউডে নারী প্রধান ছবি করার জন্য মুখিয়ে থাকেন দীপিকা পাড়ুকোন, প্রিয়াঙ্কা চোপড়ার মতো অভিনেত্রীরা। আর পরিচালক যদি হন সঞ্জয় লীলা বানশালি, তাহলে তো কথাই নেই। কিন্তু এই পরিচালকের নারী প্রধান চলচ্চিত্রের প্রস্তাব নাকি ফিরিয়ে দিয়েছিলেন তারা। শুধু দীপিকা , প্রিয়াঙ্কাই নন, প্রস্তাব পেয়েও রানি মুখার্জী সঞ্জয় লীলা বানশালির ‘গাঙ্গবাঈ কাথিয়াওয়াড়ি’ ছবিটি করতে চাননি। পরে এতে চূড়ান্ত করা হয় আলিয়া ভাটকে। বলিউডে বাণিজ্যিক ছবিতেই বেশি দেখা গেছে আলিয়াকে। গাঙ্গুর মতো শক্তিশালী নারী চরিত্র তিনি কতটা ফুটিয়ে তুলতে পারবেন; এ নিয়ে প্রশ্ন ছিল। তবে ছবিটি মুক্তির পর প্রশংসাই বেশি পাচ্ছেন আলিয়া।

বানশালির ‘রামলীলা’, ‘বাজিরাও মাস্তানি’, ‘পদ্মাবত’ সিনেমায় কাজ করেছেন দীপিকা। গাঙ্গুবাঈ চরিত্রেও বানশালি দীপিকাকে চেয়েছিলেন। কিন্তু শেষ পর্যন্ত বানশালির চাওয়া পূর্ণ হয়নি। সেসময় খবর বেরিয়েছিলেন দীপিকা নাকি অনেক বেশি পারিশ্রমিক দাবি করেছিলেন। বিষয়টি বানশালির ভালো লাগেনি। তবে বিষয়টি সত্য নয় দাবি করে বিবৃতিও দিয়েছিলেন দীপিকা। তিনি বিনা পারিশ্রমিকে বানশালির সঙ্গে কাজ করার ইচ্ছার কথাও সেসময় জানিয়েছিলেন। কিন্তু শেষ পর্যন্ত গাঙ্গু চরিত্রে দেখা যায়নি তাকে।

আনন্তবাজার জানিয়েছে, দীপিকাকে না পেয়ে প্রিয়াঙ্কার দ্বারস্থ হন বানশালি। ‘বাজিরাও মাস্তানি’ ছবিতে পার্শ্ব চরিত্রে কাজ করে সবার মন জয় করে নিয়েছিলেন প্রিয়াঙ্কা। হলিউডের প্রজেক্ট থাকায় গাঙ্গুবাই হওয়ার প্রস্তাব ফিরিয়ে দেন তিনি। চিত্রনাট্য পছন্দ হওয়া সত্ত্বেও সিনেমার প্রস্তাব ফিরিয়ে দেন রানি। গুঞ্জন আছে, যশরাজের ব্যানার ও বানশালির প্রযোজনা সংস্থার মধ্যে ঠাণ্ডা লড়াইয়ের জন্যই এমন সিদ্ধান্ত নেন রানি।
সূত্র: আনন্দবাজার

Back to top button