যুদ্ধাপরাধের তদন্ত করবে আইসিসি

ইউক্রেনে রাশিয়ার সামরিক অভিযানে সম্ভাব্য যুদ্ধাপরাধের তদন্ত শুরু হবে বলে জানিয়েছে আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালতের (আইসিসি) প্রসিকিউটর করিম এ এ খান। বৃহস্পতিবার (৩ মার্চ) এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানায় আল জাজিরা।

 প্রসিকিউটর করিম এ এ খান জানিয়েছেন, আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালত (আইসিসি) ইউক্রেনে রুশ কার্যকলাপের তদন্ত শুরু করছে। এক বিবৃতিতে তিনি বলেন, আমি কিছুক্ষণ আগে আইসিসি প্রেসিডেন্সিকে অবিলম্বে পরিস্থিতির সক্রিয় তদন্তের বিষয়ে এগিয়ে যাওয়ার সিদ্ধান্তের কথা অবহিত করেছি। প্রমাণ সংগ্রহে আমাদের কাজ এখন শুরু হচ্ছে।

তিনি আরও বলেন, আইসিসি মূলত সংস্থার মূল লক্ষ্যে কাজ করবে, যেখানে বলা হয়েছে আদালতের এখতিয়ারের মধ্যে থাকা অপরাধের জন্য জবাবদিহি নিশ্চিত করতে হবে। এক টুইট বার্তায় করিম খান বলেন, ৩৯টি দেশের রেফারেল পাওয়ার পর ইউক্রেনে আনুষ্ঠানিকভাবে সক্রিয় তদন্ত শুরু হচ্ছে।

রুশ সামরিক অভিযানে বেসামরিক নাগরিক নিহতের দাবি করেছে মানবাধিকার সংগঠনগুলো। যুদ্ধে বেসামরিক নাগরিককে হত্যা আন্তর্জাতিক মানবাধিকার আইনের লঙ্ঘন। চলতি সপ্তাহে যুক্তরাষ্ট্রের পার্লামেন্টে ইউক্রেনের দূত রাশিয়ার বিরুদ্ধে নিষিদ্ধ ভ্যাকুয়াম বোমা ব্যবহারের অভিযোগ করে। বেসামরিক নাগরিক নিহতের সত্যতা যাচাইসহ যুদ্ধাপরাধের সামগ্রিক অভিযোগের তদন্ত করবে আইসিসি।

এর আগে গত সোমবার করিম এ এ খান জানান, ইউক্রেনে যুদ্ধপরাধের অভিযোগের জন্য আদালতের অনুমোদন চাইবেন তিনি। তিনি বলেছিলেন, প্রসিকিউটরের কার্যালয় যেকোনো ব্যক্তির মাধ্যমে ইউক্রেনের ভূখণ্ডের যেকোনো অংশে যুদ্ধপরাধ, মানবতার বিরুদ্ধে অপরাধ বা গণহত্যার অতীত ও বর্তমান অভিযোগের প্রমাণ সংগ্রহ করা শুরু করবে।

সেসময় তিনি আরও জানান, তদন্তে তারা ইউক্রেনের বর্তমান লড়াই এবং ২০১৪ সালে দেশটির ওপর প্রথম রুশ আগ্রাসনের সময় ইউক্রেনে কোনো যুদ্ধাপরাধ সংগঠিত হয়েছে কি না সেটি খতিয়ে দেখা হবে।

Back to top button