৫ মিনিটে মাথাব্যথা দূর করার পদ্ধতি

মাঝে মাঝে অনেকেই প্রচন্ড মাথা ব্যথায় কাতরাতে থাকেন। মাথা ব্যথায় কখনও না কখনও কষ্ট পেতে হয় না, এমন মানুষ বিরল। অথচ তারা যদি এর সমাধানের উপায় জানত তাহলে খুব সহজেই এই সমস্যা থেকে মুক্তি পেত।

 যাদের মাইগ্রেনের সমস্যা রয়েছে তাদের এই যন্ত্রণা টানা ২-৩ দিন পর্যন্ত থাকে। অনেকে এসব ক্ষেত্রে অ্যাসপিরিন জাতীয় ওষুধের উপর নির্ভর করেন। কিন্তু এ জাতীয় ওষুধের যে নানাবিধ পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া থাকে, তা বলাই বাহুল্য। তা ছাড়া এই সব ওষুধে হাতেনাতে ফলও সব সময়ে মেলে না।

সবচেয়ে ভাল হয়, কোনও প্রাকৃতিক উপায়ে যদি মাথা ব্যথা থেকে তাৎক্ষণিক মুক্তি পাওয়া যায়। চলুন আজকে শিখে নেয়া যাক এমনই কয়েকটি প্রাকৃতিক পদ্ধতি, যা মাথাব্যথা সারাবে মাত্র ৫ মিনিটেই।

লেবুর খোসার পেস্ট :

লেবুর খোসা মাথাব্যথা সারাতে খুবই কার্যকরী একটি জিনিস।আপনি যদি লেবুর খোসার পেস্ট তৈরি করে হাতের কাছে রেখে দিতে পারেন তাহলে খুব উপকার পাবেন। মাথা যন্ত্রনা শুরু হলে লেবুর খোসার পেস্ট করে কপালে ঘষে লাগান।

আদা :

আদার অ্যান্টিইনফ্লামেটরি(anti-inflammatory) উপাদান মাথা ব্যথা কমাতে ভূমিকা রাখে। আদার উপকারী উপাদান সমূহ রক্ত প্রবাহ ঠিক রেখে মাথা ব্যথায় দ্রুত আরাম দেয়। মাথা ব্যথা শুরুর সাথে সাথে আদা চা খেতে পারেন, ব্যথা কমে যাবে।

গ্রিন টি ও লেবুর পানীয়:

গ্রিন টী এর অ্যান্টিইনফ্লেমেশন এবং অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট উপাদান খুব দ্রুত মাথাব্যথার হাত থেকে মুক্তি দেয় খুব সহজেই। তাই এটি ব্যবহার করে দেখতে পারেন। গ্রিন টি ও লেবুর রস এক কাপ জলে দিয়ে পান করুন।

দারুচিনি গুঁড়ো ও পুদিনার পেস্ট: দারুচিনি দাঁতের ব্যথার পাশাপাশি মাথাব্যথা সারাতেও বেশ কার্যকরী। তীব্র মাথা যন্ত্রনায় এটি বেশ ভালো কাজ করে। দারুচিনি গুঁড়ো ও পুদিনা পাতার পেস্ট করে কপালে লাগান।

পান পাতা:

পান পাতার প্রাকৃতিক মাথা ঠাণ্ডাকারী উপাদান মুহূর্তেই মাথা ব্যথা সারিয়ে তুলতে কার্যকারী অবদান রাখে। মাথা ব্যথা সারাতে ঘরোয়া চিকিৎসা হিসেবে তাজা দেখে তিন থেকে চারটি পান পাতা নিয়ে মোলায়েম করে ছেঁচে কপালে লাগিয়ে রাখুন। কিছুক্ষণের মধ্যে এটি আপনাকে মাথা ব্যথা থেকে মুক্তি দেবে।

Back to top button