রোগীদের হাসিমুখে সেবা প্রদান করতে হবে প্রতিটি চিকিৎসককে

জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন বলেছেন, চিকিৎসকদের নিরাপত্তা ও সুযোগ-সুবিধা প্রদানের বিষয়টি সরকার আন্তরিকভাবে বিবেচনা করে।

শনিবার রাজধানীর একটি হোটেলে স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী, মুজিব শতবর্ষ এবং বাংলাদেশ ডক্টরস ফোরামের ৩য় বর্ষ উদযাপন উপলক্ষে আয়োজিত “বিডিএফ মেম্বারস সামিট-২০২২” এ এ কথা বলেন তিনি।

প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি বলেন, রোগীদের সাথে ভুল বোঝাবুঝির কারণে চিকিৎসকরা বিভিন্ন অপ্রীতিকর ঘটনার সম্মুখীন হন। ফলে চিকিৎসকরা অনেক সময় নিরাপত্তাহীনতায় ভোগেন। ভবিষ্যতে যাতে এ ধরনের ঘটনা না ঘটে, সেজন্য সরকার আন্তরিকভাবে কাজ করে যাচ্ছে। এছাড়াও চিকিৎসকরা যেন নির্বিঘ্নে রোগীদের যথাযথ সেবা প্রদান করতে পারে সেজন্য সরকার হাসপাতালে পর্যাপ্ত চিকিৎসা সরঞ্জাম প্রদান, অবকাঠামো ও কর্ম-পরিবেশ উন্নত করেছে।
প্রতিমন্ত্রী আরো বলেন, চিকিৎসকদের সব সময় খেয়াল রাখতে হবে, যেন রোগীরা কোনো ধরনের দুর্ব্যবহারের শিকার না হন। তাই প্রতিটি চিকিৎসককে রোগীদের হাসিমুখে আন্তরিকতার সাথে সেবা প্রদান করতে হবে।

বাংলাদেশ ডক্টরস ফাউন্ডেশনের আহ্বায়ক ডা. মো. শাহেদ রফি পাভেলের সভাপতিত্বে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির সভাপতি অধ্যাপক ডা. আ ফ ম রুহুল হক এমপি, অধ্যাপক ডা. আব্দুল আজিজ এমপি, যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. মেজবাহ উদ্দিন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের ইমেরিটাস অধ্যাপক এবং প্রধানমন্ত্রীর ব্যক্তিগত চিকিৎসক অধ্যাপক ডা. এ বি এম আব্দুল্লাহ বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন।

Back to top button