দেশে নীরব দুর্ভিক্ষ চলছে : মির্জা ফখরুল

দেশে নীরব দুর্ভিক্ষ চলছে বলে দাবি করেছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তিনি বলেন, সেই দুর্ভিক্ষ ঠেকাতে আওয়ামী সরকারকে হঠানোর বিকল্প নেই।  মঙ্গলবার (৮ মার্চ) দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনের সড়কে দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতির প্রতিবাদে জাতীয়তাবাদী যুবদল আয়োজিত বিক্ষোভ সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ মন্তব্য করেন।

ইউক্রেন-রাশিয়ার যুদ্ধের প্রভাব বাংলাদেশের দ্রব্যমূল্যের উপর পড়েছে বলে প্রধানমন্ত্রীর দেওয়া বক্তব্যের তীব্র সমালোচনা করেন বিএনপি মহাসচিব। তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী বলেছেন করোনার পর এবং ইউক্রেন-রাশিয়ার যুদ্ধের ফলে জিনিসপত্রের দাম সব জায়গায় বেড়েছে। আমি তাকে জিজ্ঞাসা করতে চাই, রাশিয়া এবং ইউক্রেনের যুদ্ধ কবে থেকে শুরু হলো? আর কবে থেকে দেশের মানুষ চিৎকার করছে যে তেলের দাম কমাও, চালের দাম, ডালের দাম কমাও, আমরা আর পারছি না।

তিনি বলেন, সারাদেশে আজকে একটা প্রকৃত নীরব দুর্ভিক্ষ চলছে। মানুষ বলতে পারে না। তারা মুখোশ পড়ে টিসিবির ন্যায্যমূল্যের ট্রাকের পেছনে গিয়ে দাঁড়ায়। লাইন দীর্ঘ থেকে দীর্ঘতর হয়। ধাক্কাধাক্কি করে কোনো রকমে এক লিটার তেল, কিছু চাল-ডাল আর আলুর জন্য।বাণিজ্যমন্ত্রী যেদিন বললেন, জিনিসপত্রে দাম কমাও তা না হলে তোমাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। সেদিনই পেঁয়াজের দাম প্রতিকেজি ১০ টাকা বেড়ে গেল। এর অর্থ এ সরকারের বাজারের ওপরে কোনো নিয়ন্ত্রণ নেই।

এর প্রধান কারণ বাজারের যত সিন্ডিকেট সেই সিন্ডিকেটের প্রধান হচ্ছেন আওয়ামী লীগের নেতারা। আজকে সারাদেশে যত চাঁদাবাজি, ঘুষ খাওয়া সবকিছুর মূল হচ্ছে এ আওয়ামী লীগ। এ আওয়ামী লীগ যখনই ক্ষমতায় এসেছে তখনই তারা জনগণের মাথায় কাঁঠাল ভেঙে খাওয়ার চেষ্টা করেছে। ৭২-৭৫ সালেও একই অবস্থা ছিল। সেদিন তাদের অযোগ্যতা আর দুর্নীতির কারণে দেশে দুর্ভিক্ষ হয়েছিল।

মির্জা ফখরুল বলেন, এই সরকার বাজারের উপর কোনো নিয়ন্ত্রণ করতে পারছে না। এর প্রধান কারণ হচ্ছে সিন্ডিকেট ও আওয়ামী লীগ ব্যবসায়ী। ফলে তারা জনগণের আশা-আকাঙ্ক্ষা ভেঙে চুরমার করে দিচ্ছে। ৭২ থেকে ৭৫ সালে যা হয়েছিল, আবারো তারা তাই করছে। সরকারের অন্যায় নিপীড়ন বন্ধ করতে হলে, দেশের মানুষকে বাঁচাতে হলে, দেশে যাতে পুনরায় দুর্ভিক্ষ না হয় সে জন্য সরকার হটানোর বিকল্প নাই বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

যুবদলের কেন্দ্রীয় সভাপতি সাইফুল আলম নীরবের সভাপতিত্বে সাধারণ সম্পাদক সুলতান সালাউদ্দিন টুকুর সঞ্চালনায় বিক্ষোভ সমাবেশে বক্তব্য রাখেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, ঢাকা মহানগর উত্তর বিএনপির আহ্বায়ক আমান উল্লাহ আমান, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপির আহ্বায়ক আবদুস সালামসহ যুবদলের নেতারা।

Back to top button