অনেক রক্ত ছিলো শেন ওয়ার্নের রুমে

ক্রিকেট বিশ্বকে নির্বাক করে দিয়ে গত শুক্রবার পরপারে পাড়ি জামিয়েছেন অস্ট্রেলিয়ান লেগ স্পিনার শেন ওয়ার্ন। ছুটি কাটাতে গিয়ে থাইল্যান্ডের কোহ্‌ সামুইয়ে নিজের হোটেল রুমে নিথর অবস্থায় পাওয়া গেছে ওয়ার্নকে।

প্রাথমিকভাবে তার মৃত্যুর কারণ হার্ট অ্যাটাক বলে জানানো হয়েছে। মৃত্যুর আগে ওয়ার্নের বুকে ব্যথা করছিল, এমন খবর জানিয়েছে থাইল্যান্ড পুলিশ। তবে থাই পুলিশ আরেকটি তথ্যও জানিয়েছে। ওয়ার্নের হোটেল রুমে প্রচুর রক্ত পাওয়া গেছে।

গতকাল শুক্রবার স্থানীয় সময় বিকেল ৫টার একটু পর ওয়ার্নকে তার রুমে ডাকতে যান তার সহকারী অ্যান্ড্রু নিওফিতু। কোনো সাড়া না পেয়ে রুমে ঢুকে ওয়ার্নকে নিথর অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখে সিপিআর দেওয়া শুরু করে।

দ্রুত অ্যাম্বুলেন্স ডেকে তাকে থাই আন্তর্জাতিক হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। কিন্তু কর্তব্যরত চিকিৎসকেরা তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

গতকাল পারিবারিক সূত্রকে উদ্ধৃত করে পুলিশ এও জানিয়েছে, অ্যাজমার রোগী ওয়ার্ন কদিন আগেও হার্টের চিকিৎসক দেখিয়েছেন।

এ কারণে ওয়ার্নের মৃত্যুকে সন্দেহজনক বলে মনে করছে না পুলিশ। কিন্তু এখনো আনুষ্ঠানিকভাবে তার মৃত্যুর কারণ জানানো হয়নি।

বো ফুত পুলিশ স্টেশনের সুপারিনটেনডেন্ট ইউত্তানা সিরিসোমবাত কাল জানিয়েছেন, ময়নাতদন্তের জন্য আজ থাইল্যান্ডের মূল ভূখণ্ডে নেওয়া হবে।

তবে ফল কখন জানা যাবে, সেটা কাল বলতে রাজি হননি সিরিসোম্বা, ‘আমি নিশ্চিত নই (কখন বলা যাবে), কারণ এটা চিকিৎসকের মতামতের ওপর নির্ভর করে।’

ময়নাতদন্তের সিদ্ধান্ত নেওয়ার আগেই জানা গেছে ওয়ার্নের রুমে রক্ত পাওয়া গেছে। স্থানীয় পুলিশ কমান্ডার সাতিত পলপিন্ত থাইল্যান্ডের সংবাদমাধ্যমকে বলেছেন, ‘রুমে অনেক রক্ত পাওয়া গেছে। যখন সিপিআর দেওয়া শুরু করেছিল, মৃতের মুখ দিয়ে অনেক পানীয় বের হয়েছিল, রক্তও ছিল।’

Back to top button