বৃদ্ধাকে মাথা ফাটানো সেই নাতনি ও পুত্রবধূ গ্রেপ্তার

শেরপুরের নালিতাবাড়ীতে স্বামীর বাড়ি থেকে ৭০ বছর বয়সী এক বৃদ্ধাকে বের করে দিয়ে মাথা ফাটানোর ঘটনায় অভিযুক্ত সেই পুত্রবধূ-নাতনিকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। রোববার (১৬ জানুয়ারি) রাতে পৌর শহরের বাসা থেকে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়। গ্রেপ্তাররা হলেন ওই বৃদ্ধার বড় ছেলের স্ত্রী উমা গাঙ্গুলি ও নাতনি অথৈ গাঙ্গুলি।

 পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, নালিতাবাড়ী পৌর এলাকার উত্তর বাজার মহল্লার বাসিন্দা অমল কান্তি গত বছরের ১৫ মে মারা যান। মৃত্যুকালে তিনি দুই ছেলে, এক মেয়ে ও স্ত্রী রেখে যান। কিন্তু অমল কান্তির মৃত্যুর পর সন্তানদের মধ্যে জমিজমা নিয়ে বিরোধ সৃষ্টি হয়। এক পর্যায়ে স্থানীয় সালিসে দুই ভাইয়ের মাঝে সমানভাগে জমি ভাগ করে সীমানা প্রাচীর দেওয়া হয়।

কিন্তু ছোট ভাইয়ের অংশটুকু লিখে দিতে গড়িমসি করে বড় ভাই। ক্ষোভে মা অঞ্জলী গাঙ্গুলি বড় ছেলের ব্যবসা-প্রতিষ্ঠানে তালা ঝুলিয়ে দেন।এর জের ধরে শুক্রবার অঞ্জলী গাঙ্গুলি বড় ছেলেকে জমি লিখে দিতে বললে ক্ষিপ্ত হয়ে উঠে পুত্রবধূ ও নাতনি। নাতনি বৃদ্ধাকে মারপিট করে ঘাড় ধাক্কা দিয়ে রাস্তায় ফেলে দেয়। এ সময় রাস্তায় পড়ে বৃদ্ধার মাথা ফেটে গেলে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করে।

এদিকে এই ঘটনার ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভাইরাল হলে নিন্দা ও সমালোচনার ঝড় ওঠে। এ ঘটনায় রোববার বৃদ্ধার ছোট ছেলে বাদী হয়ে বড় ভাই অসীম, ভাবি উমা ও ভাতিজি অথৈ গাঙ্গুলিকে আসামি করে থানায় অভিযোগ দায়ের করেন। রোববার রাতে পুলিশ মা-মেয়েকে গ্রেপ্তার করে। অপর অভিযুক্ত অসীম গাঙ্গুলি পলাতক রয়েছে।

মা-মেয়েকে গ্রেপ্তারের বিষয়টি নিশ্চিত করে নালিতাবাড়ী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ বছির আহমেদ বাদল বলেন, মামলার প্রধান আসামি অভিযুক্ত অসীম গাঙ্গুলিকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

Back to top button