৮৪ বছর বয়সী প্রেমিকাকে নিয়ে পালালেন ৮০ বছরের বৃদ্ধ

একজন বয়স্ক ব্যক্তি তার ডিমেনশিয়া আক্রান্ত প্রেমিকাকে নার্সিং হোম থেকে নিয়ে পালিয়ে যান। তাদেরকে যখন খুঁজে পাওয়া যায়, ততক্ষণে তারা ৪৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রায় মৃত্যুর কাছাকাছি চলে গিয়েছিলেন।

৮০ বছর বয়সী রালফ ‘টেরি’ গিবসকে শুক্রবার আদালতে তোলা হয়। গত ২ জানুয়ারি তিনি ৮৪ বছর বয়সী প্রেমিকা ক্যারল লিসলেকে হুইলচেয়ারসহ গোপনে তার অস্ট্রেলিয়ার পার্থের একটি বৃদ্ধাশ্রম থেকে বের নিয়ে চলে যান।

গিবস তার প্রেমিকাকে ১৫ বছর আগের কেয়ার্নসে তাদের বাড়িতে নিয়ে যাওয়ার পরিকল্পনা করেছিলেন, যা সুদূর উত্তর কুইন্সল্যান্ডে, ৫ হাজার কি.মি. দূরে। কিন্তু পুলিশ অবশেষে তাদের দুই দিন পর ধরে ফেলে। সে সময় তারা ছিলেন পরিশ্রান্ত এবং তাদের কাছে ভ্রমণের জন্য পর্যাপ্ত খাবার ও পানি ছিল না।

গিবস তার প্রেমিকার সঙ্গে নার্সিংহোমে দুপুরের খাবারের জন্য সাক্ষাৎ করেছিলেন এবং তাকে সন্তর্পণে হুইলচেয়ারে করে গাড়িতে তোলেন। তারা পালিয়ে যাওয়ার সময় যে পোশাকে ছিলেন, পুলিশ তাদেরকে একই পোশাকে খুঁজে পায়। লিসলে বিভিন্ন স্বাস্থ্যগত সমস্যায় ভুগছিলেন। ৮০ বছর বয়সী ওই বৃদ্ধের বিরুদ্ধে লিসলের নিরাপত্তা বিপন্ন করার অভিযোগ আনা হয়েছে। তিনি একজন অসুস্থ ব্যক্তিকে বেআইনিভাবে নিয়ে যাওয়ার জন্য দোষ স্বীকার করেছেন।

এ ঘটনায় শুক্রবার গিবসের সাত মাসের কারাদণ্ডের স্থগিতাদেশ দেওয়া হয়। একই সঙ্গে লিসলে এখন যেখানে থাকবে, সেখানে তাকে দেখা থেকে বিরত থাকতে আদেশ দেওয়া হয়।

আদালতের বাইরে গিবস বলেন, আমার ভয় হয়, আমি আমার ‘বাচ্চা মেয়েটাকে’ আর কখনো দেখতে পাব না। আমি তাকে নিয়ে কুইন্সল্যান্ডে ফিরে যেতে চাই।

Back to top button