দুই বছর পর রংপুরে করোনা শনাক্তের হার শূন্য

প্রায় দুই বছর পর রংপুর বিভাগে করোনা শনাক্তের হার শূন্যে নেমে এসেছে। এছাড়া হাসপাতালগুলোতে রোগী কমেছে।

রংপুর বিভাগীয় স্বাস্থ্য অফিস সূত্রে জানা গেছে, ২০২০ সালের মার্চে দেশে করোনা শনাক্তের পর থেকে রংপুরে প্রতিদিন করোনা রোগী শনাক্ত হতো। দু’বছর পর সর্বশেষ ২৪ ঘণ্টায় রংপুর বিভাগের ৮ জেলায় কোথাও করোনা শনাক্ত হয়নি। মোট ৪৩ জনের নমুনা পরীক্ষা করে শনাক্তের হার শূন্য পাওয়া গেছে। এছাড়া করোনা আক্রান্ত হয়ে কেউ মারা যাননি।

রংপুর করোনা ডেডিকেটেড হাসপাতাল, ঠাকুরগাও, নীলফামারী ও গাইবান্ধা জেলার হাসপাতালে কোনো করোনা রোগী নেই। দিনাজপুর হাসপাতালে ১৭ জন, পঞ্চগড়ে ২ জন, লালমনিরহাটে একজন এবং কুড়িগ্রাম হাসপাতালে ৩ জন করোনা আক্রান্ত রোগী চিকিৎসা নিচ্ছেন।
বিভাগে এখন পর্যন্ত ৩ লাখ ৩৯ হাজার ৮১০ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ৬৪ হাজার ১০৭ জনের দেহে করোনা শনাক্ত হয়েছে। এ পর্যন্ত সুস্থ হয়েছেন ৬২ হাজার ৫৬০ জন। মৃত্যু হয়েছে ১ হাজার ২৮৩ জনের। এর মধ্যে দিনাজপুরে ৩৪০ জন, রংপুরে ৩০০ জন, পঞ্চগড়ে ৮৪ জন, নীলফামারীতে ৯২ জন, লালমনিরহাটে ৭৪ জন, ঠাকুরগাঁওয়ে ২৫৯ জন, গাইবান্ধায় ৬৫ জন, এবং কুড়িগ্রামে ৬৯ জন করোনা আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন।

রংপুর বিভাগীয় স্বাস্থ্য পরিচালক ডা. আবু মো. জাকিরুল ইসলাম লেলিন বলেন, শনাক্তের হার শূন্য হলেও মানুষকে এখনো স্বাস্থ্য বিধি মেনে চলতে হবে। অন্যথায় যেকোন সময় সংক্রমণ বাড়তে পারে।

Back to top button