মারিওপোলে ঐতিহাসিক মসজিদে রুশ হামলা, দাবি ইউক্রেনের

মারিওপোলের ঐতিহাসিক সুলতান সুলেইমান মসজিদে রাশিয়ার সেনারা গোলাবর্ষণ করেছে বলে দাবি করেছে ইউক্রেনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।

শনিবার ইউক্রেনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানায় মসজিদটিতে ৮০ জন বেসামরিক নাগরিক আশ্রয় নিয়েছিলেন।

মন্ত্রণালয়টির টুইটে বলা হয়, ‘মারিওপোলের ঐতিহাসিকভাবে গুরুত্বপূর্ণ সুলতান সুলেইমান মসজিদে রাশিয়ার আগ্রাসনকারীরা গোলা বর্ষণ করেছে। যেখানে গোলবর্ষণ থেকে বাঁচতে তুরস্কের নাগরিকসহ ৮০ জন আশ্রয় নিয়েছিলেন। যাদের মধ্যে শিশুরাও ছিল।’

এদিকে তুরস্কে অবস্থিত ইউক্রেনের দূতাবাস জানিয়েছে, ওই মসজিদে তুরস্কের নাগরিদকের ৮৬ জনের একটি দল আশ্রয় নিয়েছিল। যাদের মধ্যে ৩৪ শিশুও আছে। তবে আপাতত কোনো হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি।
রাশিয়ার পক্ষ থেকেও এখনও এ বিষয়ে কোনো মন্তব্য করা হয়নি। তুরস্কের পক্ষ থেকেও এখন পর্যন্ত কিছু জানানো হয়নি।

এদিকে ওয়াশিংটন চাইলে অস্ত্র নিয়ন্ত্রণ বিষয়ে আবারও যুক্তরাষ্ট্রের সাথে আলোচনায় বসতে প্রস্তুত আছে রাশিয়া। শনিবার রুশ ডেপুটি পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই রিয়াকভ এ কথা জানিয়েছেন।

মস্কো প্রস্তুত থাকলেও রাশিয়ার সাথে এমন আলোচনায় বসার কোনো ইঙ্গিত এখনও নেয়নি যুক্তরাষ্ট্র। তারপরও রিয়াবকভ বলেছেন, যুক্তরাষ্ট্র ও ন্যাটোর কাছে আগেই নিরাপত্তার নিশ্চয়তা দিয়ে প্রস্তাবটি পাঠানো হয়েছিল। তবে এখন আর আগের অবস্থা নেই। পরিস্থিতি অনেকটাই পাল্টে গেছে।

সূত্র: আল জাজিরা, রয়টার্স

Back to top button