ট্রেন লাইনচ্যুত হয়ে ৬১ জনের মৃত্যু

মধ্য আফ্রিকার দেশ ডেমোক্র্যাটিক রিপাবলিক অব কঙ্গোতে ভয়াবহ ট্রেন দুর্ঘটনায় কমপক্ষে ৬১ জন নিহত হয়েছেন। এছাড়া দুর্ঘটনায় আহত হয়েছেন আরও অর্ধশতাধিক মানুষ। নিহতদের মধ্যে নারী ও শিশু রয়েছে।  কঙ্গোর রাষ্ট্রীয় রেল কোম্পানি এবং স্থানীয় সূত্রের বরাত দিয়ে রোববার (১৩ মার্চ) এক প্রতিবেদনে কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আলজাজিরা জানিয়েছে, দেশটির দক্ষিণ-পূর্বাঞ্চলে প্রাণহানির এই ঘটনা ঘটে।

কঙ্গোর এসএনসিসি ট্রেন অপারেটরের পরিকাঠামোর পরিচালক মার্ক মান্যোঙ্গা এনডাম্বো শনিবার বার্তাসংস্থা এএফপি’কে জানান, ট্রেন দুর্ঘটনায় প্রাণ হারিয়েছেন মোট ৬১ জন। নিহদের মধ্যে পুরুষের পাশাপাশি নারী ও শিশুও রয়েছে। এছাড়া দুর্ঘটনায় আরও ৫২ জন আহত হয়েছেন। আহতদের উদ্ধার করা হয়েছে।

মান্যোঙ্গা জানান, দুর্ঘটনাকবলিত ট্রেনটি মূলত একটি মালবাহী ট্রেন এবং দুর্ঘটনায় পতিত হওয়ার সময় সেটি ‘কয়েক শতাধিক যাত্রী’ বহন করছিল। এসব যাত্রী গোপনে ট্রেনিটিতে ভ্রমণ করছিলেন। এছাড়া ট্রেনের মধ্যে এখনও বেশ কিছু মৃতদেহ আটকে রয়েছে বলেও জানিয়েছেন তিনি।

মান্যোঙ্গা আরও বলেন, ট্রেনটিতে থাকা ১৫টি ওয়াগনের মধ্যে ১২টিই খালি ছিল। এটি দক্ষিণ কঙ্গোর লুয়ালাবা প্রদেশের রাজধানী কোলওয়েজির কাছে টেনকে শহরের উদ্দেশে পার্শ্ববর্তী প্রদেশের লুয়েন থেকে আসছিল। একপর্যায়ে গত বৃহস্পতিবার স্থানীয় সময় রাত ১১টা ৫০ মিনিটে কোলওয়েজি থেকে ২০০ কিলোমিটার আগে একটি গ্রামে লাইনচ্যুত হয় ট্রেনটি।

Back to top button