রাজধানীর কাছাকাছি রুশ বাহিনী, ‘লড়তে প্রস্তুত’ কিয়েভ

রাশিয়ার সেনারা রাজধানী কিয়েভে হামলা জোরালো করেছে। কিয়েভ বলেছে তারাও যুদ্ধের জন্য প্রস্তুত। দৃশ্যত সহসাই শুরু হতে যাচ্ছে রাশিয়া ও ইউক্রেনের সেনাদের মধ্যে আসল লড়াই। পর্যবেক্ষকরা সতর্কতা দিয়েছেন।

 বলেছেন, দুই সপ্তাহের এই যুদ্ধে কিয়েভে মূল লড়াই হলে অকল্পনীয় এক ট্রাজেডি রচিত হবে। শনিবার (১২ মার্চ) থেকে রাজধানী কিয়েভ এবং অন্য বড় শহরগুলোতে অবিরাম সাইরেন বাজানো হচ্ছে। এখানে ওখানে গোলা নিক্ষেপ হচ্ছে।

পশ্চিমা প্রতিরক্ষা বিষয়ক কর্মকর্তারা বলছেন, রাজধানীকে চারপাশ থেকে তাদের দখলে নেয়ার কার্যক্রম শুরু করেছে রাশিয়ানরা।শনিবারও দেশটির পূর্বাঞ্চলে দনিপ্রোতে বিকট বিস্ফোরণ হয়েছে। আরও বিস্ফোরণ হয়েছে মিকোলাইভ, নিকোলায়েভ এবং ক্রোপিভনিৎস্কিতে।

রাজধানীতে একের পর এক হামলা হলেও ইউক্রেনের প্রেসিডেন্সিয়াল উপদেষ্টা মিখাইলো পোডোলাইক বলেছেন, যুদ্ধের জন্য প্রস্তুত কিয়েভ। তিনি একে ‘সিটি আন্ডার সিজ’ হিসেবে আখ্যায়িত করেছেন।বলেছেন, চেকপোস্টগুলো প্রস্তুত আছে। সরবরাহ লাইন ঠিকঠাক মতো কাজ করছে। শেষ পর্যন্ত কিয়েভ মাথা উঁচু করে দাঁড়াবে।

ওদিকে শনিবার ম্যাক্সার টেকনোলজির স্যাটেলাইট ছবিতে দেখা গেছে, রাজধানীতে বিভিন্ন বাড়ি ও ভবন আগুনে জ্বলছে। মনে হচ্ছে রাশিয়ান আর্টিলারি ব্যাটালিয়ন রাজধানীর উত্তর-পশ্চিমে অগ্নিসংযোগ করেছে। বিপুল এলাকা পুড়ে মাটির সঙ্গে মিশে গেছে।

শুক্রবার পেন্টাগনে ব্রিফিংয়ে যুক্তরাষ্ট্রের একজন প্রতিরক্ষা বিষয়ক কর্মকর্তা বলেছেন, আমাদের মূল্যায়ন হলো- রাশিয়ানরা রাজধানী কিয়েভমুখি অভিযান জোরালো করেছে।

বিশেষ করে পূর্ব দিক থেকে। তবে ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভোলোদিমির জেলেনস্কি বলেছেন, মাটির সঙ্গে মিশিয়ে না দেয়া পর্যন্ত কিয়েভকে দখল করতে দেয়া হবে না।অর্থাৎ রাশিয়া যদি কিয়েভকে মাটির সঙ্গে মিশিয়ে ফেলে তবেই তারা কিয়েভ জয় করতে পারবে।

Back to top button