চীনের কাছে অস্ত্র ও আর্থিক সহযোগিতা চেয়েছে রাশিয়া

ইউক্রেনে যুদ্ধ চালিয়ে নেওয়ার জন্য রাশিয়া চীনের কাছে সামরিক ও আর্থিক সহায়তা চেয়েছে বলে দাবি করেছেন যুক্তরাষ্ট্রের কর্মকর্তারা। কিন্তু ওয়াশিংটনের চীনা দূতাবাস বলছে, রাশিয়ার অস্ত্র সহায়তা চাওয়ার মতো কোনো বিষয় অবগত নয় চীনা দূতাবাস। এ ছাড়া দূতাবাসের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, ইউক্রেনের উত্তেজনা কমিয়ে আনার দিকেই বেইজিংয়ের মনোযোগ। ইউক্রেনের সঙ্গে রাশিয়ার লড়াইয়ে চীন নিরপেক্ষ অবস্থান গ্রহণ করেছেন বলেও জানান তারা।

রাশিয়ার এই সাহায্য চাওয়ার গোয়েন্দা তথ্য কীভাবে পাওয়া গেল, তা গোপন রেখেছেন যুক্তরাষ্ট্রের কর্মকর্তারা। মস্কো কী ধরনের অস্ত্র বা সামরিক সহায়তা চেয়েছে সে বিষয়েও বিস্তারিত বলতে চাননি তারা। মস্কোর ওই আবেদনের জবাবে বেইজিং কী প্রতিক্রিয়া দেখিয়েছে, সে বিষয়টিও এড়িয়ে গেছেন মার্কিন কর্মকর্তারা।

ইউক্রেনে রুশ হামলা নিয়ে চীনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ওয়াং জি বলেন, বেইজিং সমস্যা সমাধানের জন্য নিষেধাজ্ঞার মতো পদক্ষেপের বিরোধিতা করে এবং চীন মনে করে এক তরফা নিষেধাজ্ঞার কোনো আন্তর্জাতিক আইনী ভিত্তি নেই।

গত ২৪ ফেব্রুয়ারি ইউক্রেনে সামরিক অভিযানের ঘোষণা দেন রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন। এরপর থেকে ইউক্রেনে সামরিক অভিযান চালাচ্ছে রাশিয়া। পশ্চিমাদের বাধা উপেক্ষা করে পূর্ব ইউরোপের দেশটিতে চলছে রুশ অভিযান। ইউক্রেনীয় সেনারাও প্রতিরোধ করছে। তীব্র লড়াই চলছে কিয়েভ, খারকিভ, মারিওপলসহ গুরুত্বপূর্ণ শহরগুলোতে।

Back to top button