ইউক্রেনে নিউইয়র্ক টাইমসের সাংবাদিককে গুলি করে হত্যা করল রুশ সৈন্যরা

ইউক্রেনের রাজধানী কিয়েভের উপকণ্ঠের শহর ইরপিনে মার্কিন দৈনিক নিউইয়র্ক টাইমসের এক সাংবাদিককে গুলি করে হত্যা করেছে রুশ সৈন্যরা। নিহত ওই সাংবাদিকের নাম ব্র্যান্ড রেনড। এছাড়া আরও দুই সাংবাদিক আহত হয়েছেন। আজ রবিবার (১৩ মার্চ) বিবিসির এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে। কিয়েভের পুলিশ প্রধান আন্দ্রে নেবিতোভ জানান, রুশ সৈন্যরা তাঁদেরকে লক্ষ্যবস্তু করেছে। আহত আরও দুই সাংবাদিককে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। বিবিসি বলছে, ইউক্রেন যুদ্ধের মাঠে কাজ করা প্রথম বিদেশি সাংবাদিক হিসেবে ব্র্যান্ড রেনডের মৃত্যুর খবর এলো।

মার্কিন সংবাদমাধ্যম নিউইয়র্ক টাইমস এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, ব্র্যান্ড রেনডের মৃত্যুতে তারা গভীরভাবে শোকাহত। কিন্তু বর্তমানে তিনি ইউক্রেনে সংবাদমাধ্যমটির হয়ে কাজ করছেন না। তিনি সর্বশেষ ২০১৫ সালে সংবাদমাধ্যমটির হয়ে কাজ করেছেন। নিউইয়র্ক টাইমস আরও বলেছে, ব্র্যান্ড রেনড ইউক্রেনে তাদের যে প্রেস আইডিটি ব্যবহার করেছেন সেটি কয়েক বছর আগে ইস্যু করা হয়েছিল। ইউক্রেনে বর্তমানে তিনি কোন প্রতিষ্ঠানের হয়ে কাজ করছিলেন তা তাৎক্ষণিকভাবে জানা যায়নি।

উল্লেখ্য, গত ২৪ ফেব্রুয়ারি রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট পুতিনের সামরিক অভিযান ঘোষণার কয়েক মিনিট পরেই ইউক্রেনে বোমা ও ক্ষেপণাস্ত্র হামলা শুরু করে রুশ সেনারা। এরপর থেকে ইউক্রেন ও রাশিয়ার মধ্যে যুদ্ধ চলছে। ইতোমধ্যে ইউক্রেন ছেড়েছেন ২৫ লাখের বেশি মানুষ। এ ছাড়া যুদ্ধে ইউক্রেনের ১৩শ’ সেনা নিহত এবং রাশিয়ার ১২ হাজার সৈন্য নিহত হয়েছে বলে দাবি করেছে ইউক্রেন। তবে রাশিয়া বলছে, যুদ্ধে তাদের প্রায় ৫০০ সৈন্য নিহত এবং ইউক্রেনের আড়াই হাজারের বেশি সেনা নিহত হয়েছেন।

Back to top button