কখন পরমাণু অস্ত্র ব্যবহার করবে জানালো রাশিয়া

ইউক্রেনের সঙ্গে যুদ্ধে পরমাণু অস্ত্র ব্যবহারের ইচ্ছা থেকে সরে আসেনি রাশিয়া। এ বিষয়ে রাশিয়ার প্রেসিডেন্টের দপ্তর ক্রেমলিনের মুখপাত্র পেসকভ সিএনএনের আমানপুরকে বলেছেন, ‘আমাদের অভ্যন্তরীণ নিরাপত্তার একটা ধারণা আছে এবং বিষয়টি প্রকাশ্য। আপনি পরমাণু অস্ত্র ব্যবহারের সবগুলো কারণ পড়ে দেখতে পারেন।’

স্থানীয় সময় মঙ্গলবার (২২ মার্চ) এক সাক্ষাৎকারে তার দেশের এ অবস্থানের কথা জানিয়েছেন। ইউক্রেনের সঙ্গে প্রায় এক মাস ধরে চলা যুদ্ধে রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন যে পরমাণু অস্ত্র ব্যবহার করবেন না, সে বিষয়ে পেসকভ ‘আশ্বস্ত কিংবা আত্মবিশ্বাসী’ কি না, তা জানতে চান সিএনএনের বিখ্যাত সাংবাদিক ক্রিস্টিয়ান আমানপুর।

জবাবে ক্রেমলিনের মুখপাত্র বলেন, ‘আমাদের অভ্যন্তরীণ নিরাপত্তার একটা ধারণা আছে এবং বিষয়টি প্রকাশ্য। আপনি পরমাণু অস্ত্র ব্যবহারের সবগুলো কারণ পড়ে দেখতে পারেন। দেশ অস্তিত্ব সংকটে পড়লে আমাদের ধারণার সঙ্গে সংগতি রেখে সেটি (পরমাণু অস্ত্র) ব্যবহার হতে পারে।’

তিনি আরও বলেন, ইউক্রেনে সবকিছু পরিকল্পনামাফিক হচ্ছে। গত ২৪ ফেব্রুয়ারি ইউক্রেনে সামরিক অভিযানের ঘোষণা দেন ভ্লাদিমির পুতিন। সে মাসেই তিনি রাশিয়ার পরমাণু শক্তিকে উচ্চ সতর্ক অবস্থানে থাকার নির্দেশ দেন। পুতিনের ঘোষণার পর রাশিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় ২৮ ফেব্রুয়ারি জানায়, দেশটির পরমাণু শক্তিসম্পন্ন ক্ষেপণাস্ত্র এবং উত্তরাঞ্চলীয় ও প্রশান্ত মহাসাগরীয় নৌবহরগুলোকে বাড়তি যুদ্ধ দায়িত্বে রাখা হয়েছে।

রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধের ১৯তম দিন ১৪ মার্চ জাতিসংঘের মহাসচিব অ্যান্তোনিও গুতেরেস বলেন, একসময় পরমাণু অস্ত্র নিয়ে সংঘাতের বিষয়টি চিন্তাই করা যেত না। এখন সেটি সম্ভাবনার মধ্যে চলে এসেছে।

Back to top button