চুয়াডাঙ্গায় নিম্নমানের ইট-খোয়া বালি দিয়ে ডাক ভবন নির্মাণের অভিযোগ

মোঃ আব্দুল্লাহ হক চুয়াডাঙ্গা প্রতিনিধি: চুয়াডাঙ্গা জেলার দামুড়হুদা উপজেলায় সরকারি ডাক বিভাগের পুরাতন ভবন ভেঙে নতুন ভবন নির্মাণ কাজের অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে। নির্মানাধীন এই ভবনের কাজে নিম্নমানের সামগ্রি ব্যবহার করছে ঠিকাদার। অথচ নির্মাণকাজে এক নম্বর ইট ও উন্নতমানের খোয়া ব্যবহারের নির্দেশনা রয়েছে।
উপজেলায় নতুন ডাক ভবন ২০২১ সালে টেন্ডারের মাধ্যমে ঝিনাইদার ঠিকাদার টোকন মিয়া এই কাজ পান। ৩৩ লক্ষ টাকা ব্যায়ে নির্মিত হলরুম, ১২ স্কয়ার ফুট বিশিষ্ট স্টোররুমসহ উপজেলা পোস্ট অফিসের ডিজাইন মোতাবেক এক নম্বর ইট ও উন্নতমানের খোয়া দিয়ে কাজ করার কথা। অথচ এই কাজে ব্যবহার হচ্ছে ২ ও তিন নম্বর ইট। এছাড়াও ভেঙে ফেলা পুরাতন ভবনের ইট দিয়ে করা হয়েছে গাঁথুনি। একই ইট ভেঙে খোয়া করে করা হয়েছে ঢালাইয়ের কাজ।
উপজেলা ডাক বিভাগের ভবন নির্মাণকাজে উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপের দাবি সচেতন মহলের। এ বিষয়ে উপজেলা পোস্ট মাস্টার সুন্নত আলি সাংবাদিকদের জানান, নিম্নমানের ইট-খোয়া বালি ব্যবহার করা হলেও আমাদের কিছুই করার নেই। এটা কর্তৃপক্ষ দেখবে।
এ বিষয়ে ঝিনাইদহের ঠিকাদার টোকন মিয়া জানান, ৩ নম্বর ইট ব্যবহার করা হচ্ছে না। কিছু  ২ নম্বর ইট ব্যবহার করা হচ্ছে। ইটের দাম বেড়ে যাওয়ায় ১৪ হাজার টাকার ইট ২২ হাজার টাকায় কিনতে হচ্ছে। ইটসহ সকল নির্মাণ সামগ্রির দাম বেড়ে যাওয়ায় এই কাজে বড় ধরনের লোকসান গুনতে হবে।

Back to top button