ঘরে ঢুকে দুই সন্তানের মুখ বেঁধে মাকে কুপিয়ে হত্যা

রাজধানীর সবুজবাগ থানার দক্ষিণগাঁও বেগুনবাড়ি এলাকায় তানিয়া আফরোজ মুক্তা (২৮) নামে এক নারীকে নিজ ঘরে কুপিয়ে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। শনিবার (২৬ মার্চ) বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে যায় সবুজবাগ থানা পুলিশ।

 বিষয়টি নিশ্চিত করে মতিঝিল বিভাগের সবুজবাগ জোনের সহকারী পুলিশ কমিশনার (এসি) মনতোষ বিশ্বাস বলেন, আমরা খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে এসেছি। নিহত ওই নারীর ঘাড়ে ও পিঠে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কোপের চিহ্ন রয়েছে। ঘটনাস্থলে সিআইডির ফরেনসিকে টিম এসেছে। তারা আলামত সংগ্রহ করছে।

মনতোষ বিশ্বাস বলেন, নিহত নারীর মরদেহের পাশে মুখে স্কচটেপ প্যাঁচানো অবস্থায় পড়ে ছিল তার দুই শিশু সন্তান। এদের মধ্যে একজনের বয়স বয়স ৩ ও আরেক জনের বয়স ১০ মাস। ১০ মাসের বয়সী শিশুটি অসুস্থ হয়ে পড়ায় তাকে হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। ৩ বছর বয়সী শিশুটি সুস্থ আছে।

তিনি আরও বলেন, নিহত মুক্তার স্বামী ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের টেকনোলজিস্ট হিসেবে চাকরি করেন। মুক্তা তিন বছরের মেয়ে ও ১০ মাসের ছেলেকে নিয়ে ওই বাসার দ্বিতীয় তলায় থাকতেন। মুক্তার বাসার এসি মেরামত করতে কেউ এসেছিল। আমরা এসে ঘরের দরজা খোলা পেয়েছি।

প্রাথমিকভাবে ধারণা করছি, এসি মেরামত করতে আসা কেউ হয়ত তাকে খুন করে থাকতে পারে। ওই নারীর মরদেহ এখনো এই বাসাতেই আছে। সিআইডির ফরেনসিক টিম আলামত সংগ্রহ করে চলে গেলে ময়নাতদন্তের জন্য মরদেহ ঢাকা মেডিকেল কলেজ মর্গে পাঠানো হবে। তার স্বামী খবর পেয়ে ফরিদপুর থেকে রওনা করেছেন। তদন্ত চলছে বিস্তারিত পরে জানানো হবে।

Back to top button